নিবন্ধনের পরও এয়ারটেল সংযোগ বিচ্ছিন্ন, চরম ভোগান্তিতে কোটি মানুষ

Airtel BD June 1, 2016 3,332
নিবন্ধনের পরও এয়ারটেল সংযোগ বিচ্ছিন্ন, চরম ভোগান্তিতে কোটি মানুষ

মঙ্গলবার ৩১ মে শেষ হয়েছে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনের সকল কার্যক্রম। এই সময়ের মধ্যেই সিংহভাগ মানুষ সম্পন্ন করেছেন তাদের রি-রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া। কিন্তু এর পরেও বুধবার ১ জুন থেকেই এয়ারটেল গ্রাহকরা পড়েছেন ভোগান্তির মুখে। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পরেও ‘এয়ারটেল’ সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় এ ভোগান্তিতে পড়েছে পুরো দেশজুড়ে কয়েক কোটি গ্রাহক।


এদিকে আঙ্গুলের ছাপ অর্থাৎ বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনের প্রথম দফার আল্টিমেটামের শেষদিন ছিল গত ৩০ এপ্রিল। এরমধ্যে সব গ্রাহক সিম নিবন্ধন করতে না পারায় পুনরায় সিম নিবন্ধনের মেয়াদ বাড়িয়ে তা করা হয় ৩১ মে। এরমধ্যে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন করা না হলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে বলে জানানো হয়। তবে যারা এরমধ্যে নিজ নিজ আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে সিম নিবন্ধন করেছেন, তাদের সংযোগও বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে গত ৩১ মে রাত থেকেই।


এদিকে এয়ারটেল নিয়ে ভোগান্তির কথা উল্লেখ্য করে সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমত ঝড় বইয়ে যাচ্ছে। ভীষণ ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন ভোগান্তির স্বীকার গ্রাহকরা। তার ক্ষোভ জানিয়ে নিজ নিজ ওয়ালে স্ট্যাটাসও দিচ্ছেন।


এয়ারটেল নিয়ে ভোগান্তির শিকার চারুশিল্পী চারু পিন্টু লিখেছেন, ‘*…লের এয়ারটেল কোম্পানী। আমার ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সীম এয়ারটেল গত মাসেই রেজিস্ট্রেশন করা সমস্ত কাগজপত্র জমা দিয়ে চার আঙুলের ছাপ দিয়ে কনফারমেশ্ন করলাম এবং কোম্পানী থেকে ম্যাসেজ আসলো সাকসেজ এর। তারপরো এই কোম্পানী আমার সীম বন্ধ করে দিলো Airtel Buzz কোম্পানী। এটা কোন সেবার আওতায় পড়ে?? পুরো ভাওতাবাজি ব্যাবসা। বাটিচালান দিয়েও তাদের সরসরি কাস্টমার কেয়ার এই ঢাকা শহরে খুঁজে পাওয়া যায় না, থার্ড পার্টি দোকানদারকে কাস্টমার ম্যানেজার বানিয়ে রেখেছে এই কোম্পানী যারা ২০ টাকার বিনিময়ে রেজিস্ট্রেশন করাতে বাধ্য করেছে। আমার ফোন আজ যদি একটিভ না করে দেয় তবে ক্ষতিপুরণের মামলা করে দেবো এই কোম্পানির বিরুদ্ধে। যতসসব ফালতু কোম্পানী।


ব্লগার নিল সাধু লিখেছেন, ‘আমরা এয়ারটেল সিম রি-রেজিস্ট্রেশনে করেছি এবং কনফার্ম মেসেজ ও পেয়েছি। ১০০ টাকার বোনাস টক টাইম ও পেয়েছি তাহলে আমাদের সিম বন্ধ কেন’?


সাংবাদিক তারিক ইবনে জিয়াস জানান, প্রথম ধাপে আমি বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন করি। এরপর এয়ারটেল থেকে আমাকে কনফার্ম ম্যাসেজও দেয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন আমার সিমের সংযোগ বিচ্ছিন্ন।


এদিকে ভোগান্তির শিকার এয়ারটেল ব্যবহারকারী গ্রাহকরা জানিয়েছেন, গতরাত (৩১) মে থেকে তাদের সংযোগ শুধু বিচ্ছিন্নই নয়, কোন রকম নেটওয়ার্কও পাওয়া যাচ্ছে না। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছে গ্রাহকরা।


এ বিষয়ে বেসরসকারি মোবাইল অপারেটর এয়ারটেল কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করলে ছাদ্দাম হোসেন নামের একজন নির্বাহী কর্মকতা বলেন, নেটওয়ার্ক না পাওয়ার জন্য আমরা দুঃখিত। বিষয়টি নিয়ে আমাদের আইটি সেক্টর কাজ করছেন, আশা করছি দুপুরের মধ্যে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।


তিনি আরো জানান, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে যারা বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম রেজিস্ট্রেশন করেননি তারা আগামী সাতদিনের (৭ জুন) মধ্যে বিনামূল্যে পুনর্নিবন্ধন করতে পারবেন। সাতদিন পর নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। তবে আজ (১ জুন, বুধবার) থেকে সকল অনিবন্ধিত সিম অকার্যকর হয়ে গেছে।