স্মার্টফোনের ব্যাটারির আয়ু বাড়ানোর ৫ উপায়

মোবাইল টিপস May 5, 2016 571
স্মার্টফোনের ব্যাটারির আয়ু বাড়ানোর ৫ উপায়

বর্তমানে স্মার্টফোন ছাড়া এক পাও চলতে পারেন না অনেকেই। তবে সাধের স্মার্টফোনে বেশিক্ষণ চার্জ না থাকায় বিপাকে পড়তে হয় ব্যবহারকারীদের। স্মার্টফোনের ব্যাটারির ওপর তো আর কম চাপ যায় না। হাইরেজুলেশনের স্ক্রিন, শক্তিশালী প্রসেসর, মেমোরি আর হাজারটা অ্যাপসের চাপ তো এই ব্যাটারিকেই সামলাতে হয়। তাই ব্যাটারির চার্জও ফুরাতে সময় লাগে না। তবে ব্যাটারির আয়ু বাড়াতে অনুসরণ করতে পারেন কিছু পদ্ধতি। এতে একদিকে যেমন আপনার স্মার্টফোনের চার্জ বাঁচবে, অন্যদিকে আয়ুও বাড়বে ব্যাটারির।


ব্যাটারি ঠাণ্ডা রাখুন : অনেক সময় কথা বলতে বলতে কিংবা কোনো অ্যাপস চালাতে চালাতে ব্যাটারি গরম হয়ে যায়। মাত্রাতিরিক্ত গরম হলে কিন্তু স্মার্টফোনটির বিস্ফোরণ পর্যন্ত হতে পারে। তাই ব্যাটারি গরম হওয়া শুরু করলে স্মার্টফোন ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।


কেনা অ্যাপস ব্যবহার করুন : বিনামূল্যে পাওয়া বিজ্ঞাপন নির্ভর অ্যাপস ব্যাটারির স্থায়িত্ব কমিয়ে দেয় বলে গবেষণায় দেখা গেছে। বিনামূল্যে নামানো সব অ্যাপস এর জন্য দায়ী না হলেও প্রিয় স্মার্টফোনকে বেশিদিন বাঁচিয়ে রাখতে কিনে অ্যাপস ব্যবহারের পরমার্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।


শতভাগ চার্জ দেবেন না : ব্যাটারির চার্জ একেবারে ১০ শতাংশ কমে যাওয়া যেমন ক্ষতিকর, তেমনি শতভাগ চার্জও ব্যাটারির আয়ু কমিয়ে দেয়। তাই ৩০ শতাংশ থাকতেই ব্যাটারিতে চার্জ দিন। ৮০ শতাংশ হলেই চার্জ দেওয়া বন্ধ করে দিন।


স্ক্রিনের ঔজ্জ্বল্য কমিয়ে রাখুন : স্মার্টফোনের স্ক্রিনের শতভাগ ঔজ্জ্বল্য দেবেন না। শতভাগ ঔজ্জ্বল্য সাময়িকভাবে ব্যবহারের জন্য ভাল হলেও এটা ধীরে ধীরে ব্যাটারির আয়ু কমিয়ে দেয়। তাই স্ক্রিনের ঔজ্জ্বল্য মাঝামাঝি রাখুন। স্ক্রিনের ঔজ্জ্বল্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিয়ন্ত্রণে ব্যবহার করতে পারেন লাক্স নামে একটি অ্যাপস।


বন্ধ রাখুন তারহীন নেটওয়ার্ক : ব্যাটারির স্থায়িত্ব বাড়াতে ব্যবহার না করলে বন্ধ রাখুন ব্লুটুথ, ওয়াইফাই, মোবাইল ডাটা ও জিপিএসসহ সব ধরনের তারহীন নেটওয়ার্ক।