ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি হাঁকিয়েই ফিরলেন লিটন দাস

ক্রিকেট দুনিয়া January 11, 2022 1,299
ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি হাঁকিয়েই ফিরলেন লিটন দাস

মাউন্ট মঙ্গানুইতে ঐতিহাসিক জয়ের পর ক্রাইস্টচার্চে এসে ইনিংস হারের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ। ফলোঅনে পড়ে তৃতীয় দিন সকালে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে চা-বিরতির আগেই পাঁচ উইকেট হারিয়েছে টাইগাররা। তবে সোহানের সঙ্গে শতাধিক রানের জুটির পর লিটনের দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে কিছুটা হলেও লড়াইয়ে ফেরে বাংলাদেশ।


মঙ্গলবার ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের তৃতীয় দিনে তৃতীয় সেশনের খেলা চলছে। প্রথম ইনিংসে ১২৬ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ২৬৯ রান।


ইনিংস পরাজয় এড়াতে এখনও ১২৬ রান দূরে বাংলাদেশ। তবে প্রথম ইনিংসে ভেঙে পড়া বাংলাদেশ কিছুটা লড়াইয়ের তাগিদ দেখাতে পেরেছে এ ইনিংসে। টেস্ট ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় শতক পূরণ করেই অবশ্য সাজঘরে ফেরেন লিটন দাস। ফেরার আগে খেলেন ১০২ রানের অনবদ্য ইনিংস। তাঁর এই ১১৪ বলের ইনিংসে ছিল ১৪টি চারের সঙ্গে একটি ছক্কার মার।


দিনটি আরও ভালো হতে পারত, যদি না সাদমান ইসলাম বিলিয়ে আসতেন উইকেট আর ফাঁদে পা না দিতেন নাজমুল হোসেন শান্ত। শুরু থেকেই দারুণ আস্থায় খেলতে থাকা সাদমান ৪৮ বলে ২১ রান করে আউট হন লেগ স্টাম্পের বাইরের বলে কিউই কিপার টম ব্লান্ডেলের দুর্দান্ত ক্যাচে। নেইল ওয়্যাগনারের শর্ট বলের স্রোতে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে নামা শান্ত সেই রোমাঞ্চের বলি হয়েই ফেরেন ৫ চার ও ১ ছক্কায় ২৯ রান করে।


টেস্ট অভিষেকে প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে আউট হওয়া মোহাম্মদ নাঈম শেখ অবশ্য টিকে খেলার চেষ্টা করেছেন। তবে শেষ পর্যন্ত আর ধৈর্য ধরে রাখতে পারেননি তিনি। আউট হয়েছেন ২৪ রানেই, ৯৮টি বল খেলে, মাত্র একটি বাউন্ডারিতে।


এরপর আউট হয়ে ফেরেন অধিনায়ক মোমিনুলও। অবশ্য তাঁর ব্যাট থেকে ৩৭ রান। যাতে ১২৩ রানেই চতুর্থ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এরপর দলীয় ১২৮ রানেই মাত্র ২ রানে ফেরেন প্রথম ইনিংসের একমাত্র ফিফটি ম্যান ইয়াসির আলী। নেইল ওয়াগনর একাই ৩টি উইকেট শিকার করেন।


যার ফলে এখন বড় রানের সঙ্গে ইনিংস ব্যবধানে বাংলাদেশের হারটা কেবলই সময়ের অপেক্ষা মাত্র। কেননা, নবম উইকেটে ক্রিজে আছেন শরিফুল ইসলাম শূন্য রানে এবং তাসকিন আহমেদ ৪ রানে।


এর আগে নুরুল হাসান সোহান ৩৬ রানে ড্যারিল মিচেলের বলে ক্যাচ দিয়ে আউট হন এবং মেহেদী হাসান মিরাজ ৩০ বলে ৩ রান করে জেমিসনের দ্বিতীয় শিকার হন। যাতে ২৪৪ রানেই সপ্তম উইকেট হারায় বাংলাদেশ।