কোকা-কোলার জন্মরহস্য জানুন

জানা অজানা April 29, 2016 1,189
কোকা-কোলার জন্মরহস্য জানুন

গরম পড়েছে। অন্যান্য বিভিন্ন পানীয়ের সঙ্গে নিশ্চয়ই চুটিয়ে কোকা-কোলাও খাচ্ছেন। কিন্তু বিশ্বজুড়ে অত্যন্ত জনপ্রিয় এই পানীয়ের জন্ম রহস্য জানেন? আমেরিকার কনফেডারেট আর্মির একজন লেফটেনেন্ট কর্নেল জন পেম্বারটন কোকা-কোলার আবিষ্কারক ছিলেন।


১৮৬৫ সালে আহত হয়ে বাহিনী থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরে তিনি মরফিনে আসক্ত হয়ে পড়েন। যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতেই নিয়মিত মরফিন সেবন করতেন পেম্বারটন।


আর এই মরফিন আসক্তি থেকে মুক্তি পেতে গিয়েই কোকা-কোলা আবিষ্কার করে ফেলেছিলেন তিনি। সেনাবাহিনীতে কাজ করলেও পেম্বারটন একজন পেশাদার ফার্মেসিস্ট ছিলেন।


মরফিন আসক্তি থেকে মুক্তি পেতে প্রথমে ‘ডক্টর টাগেলস কম্পাউন্ড সিরাপ’ নামে একটি সিরাপ তৈরি করেন পেম্বারটন।


সেই সিরাপকে আরও সুস্বাদু এবং উন্নত করতে গিয়ে কোকা এবং কোকা ওয়াইনের সঙ্গে কোলা নাট এবং ডামিয়ানা পাতার মতো উপকরণ মিশিয়ে একটি পানীয় তৈরি করেন তিনি। যা খেলে ব্যথার উপশম হত। এর নাম দেওয়া হয় ‘পেম্বারটন ফ্রেঞ্চ ওয়াইন কোলা’।


কিন্তু ১৮৮৬-তে অ্যাটলান্টা এবং ফুলটন কাউন্টিতে মদ্যপান নিষিদ্ধ হয়ে যায়। এর পরে বাধ্য হয়েই ওয়াইনের বিকল্প হিসেবে নতুন পানীয় তৈরি করতে হয় পেম্বারটনকে। পানীয় নিয়ে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্যেই বেস সিরাপের সঙ্গে কার্বোনেটেড ওয়াটার মিশিয়ে একটি পানীয় তৈরি করে ফেলেন পেম্বারটন।


সেটাই ফাউন্টেন ড্রিংক হিসেবে বিক্রি করতে শুরু করেন পেম্বারটন। পরবর্তীকালে ফ্র্যাঙ্ক ম্যাসন রবিনসন ওই পানীয়ের নাম দেন কোকা-কোলা। একসময়ে এই নাম নিয়েই বিতর্ক দানা বাঁধে।


অভিযোগ ওঠে, কোকা-কোলায় কোকেন আছে বলেই এমন নামকরণ করা হয়েছে। যদিও সংস্থার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, কোকা-কোলার কোন আক্ষরিক অর্থ নেই।


শুধুমাত্র নামটা আকর্ষণীয় বলেই ‘কোকা-কোলা’-কে বেছে নেওয়া হচ্ছে।