আম্পায়ারকে চার রান কমিয়ে দিতে বলেছিলেন স্টোকস!

ফুটবল দুনিয়া 17 Jul 2019 at 3:35pm 622
Googleplus Pint
আম্পায়ারকে চার রান কমিয়ে দিতে বলেছিলেন স্টোকস!
ইংল্যান্ডের পেসার জেমস অ্যান্ডারসনের দাবি, বিশ্বকাপ ফাইনালের মোড় ঘুরিয়ে দেয়া সেই অতিরিক্ত চার রান নিতে চাননি অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। ম্যাচ শেষে আম্পায়ারদের কাছে গিয়ে সেই চার রান ফিরিয়ে নিতে বলেছিলেন ইংলিশ এই অলরাউন্ডার।

ম্যাচের ৫০তম ওভারের চতুর্থ বলে ২ রানের জন্য দৌড় দেন স্টোকস। দ্বিতীয় রান পূর্ণ করার সময় ক্রিজে ঝাপিয়ে পড়েন তিনি। সে সময় মিডউইকেট বাউন্ডারি থেকে নিউজিল্যান্ডের ফিল্ডার মার্টিন গাপটিলের থ্রো স্টোকসের ব্যাটে লেগে পেরিয়ে যায় বাউন্ডারি।

যার সুবাদে দুই রানের জায়গায় ইংল্যান্ড পেয়ে যায় ছয় রান। এই ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে স্টোকস হাত তুলে বসে পড়েন এবং জানান দেন ইচ্ছাকৃত এমনটি করেননি তিনি। পরবর্তীতে ম্যাচ টাই হলেও সুপার ওভারে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয় ইংলিশরা।

ম্যাচ শেষে আম্পায়ারদের কাছে গিয়ে স্টোকস সেই চার রান ফিরিয়ে নিতে বলেন। যা নিজ চোখে দেখেছেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভন।

‘সেই ঘটনার পর আমি সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভনের সঙ্গে আলাপ করেছিলাম, সে দেখেছিল স্টোকসকে ম্যাচ শেষে আম্পায়ারের কাছে গিয়ে বলতে যে সেই চার রান তাদের দরকার নেই। রানগুলি তারা যেন কেটে নেয়।’ বলেছেন অ্যান্ডারসন।

পাঁচবার আইসিসির বর্ষসেরা সাবেক আম্পায়ার সায়মন টফেল মনে করছেন, ইংল্যান্ডকে সে সময় ছয় রানের জায়গায় পাঁচ রান দেওয়া উচিত ছিল। ছয় রান দেওয়ার সিদ্ধান্তে স্ট্রাইক পান স্টোকস।

যে সিদ্ধান্ কিউইদের বিপক্ষে গিয়েছে বলে মনে করেন টফেল। এমন সিদ্ধান্ত মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের নিয়মকেও ভঙ্গ করেছে বলে দাবি করেন বর্তমানে আম্পায়ারদের প্রশিক্ষণ দেওয়া এই কোচ। তাঁর ভাষায়, ‘তাদের পাঁচ রান দেওয়া উচিত ছিল। ছয় রান নয়। এটা পুরোপুরি ভুল ছিল।

আম্পায়ারদের বিচার করায় ভুল হয়েছে। আম্পায়াররা এখানে লক্ষ্য করেছে কে রান নিচ্ছিল। কিন্তু তাদের দেখা উচিত ছিল ফিল্ডার বল থ্রো করার সময় ব্যাটসম্যানের গতিবিধি কেমন ছিল। আম্পায়াররা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা ন্যায্য নয়।’

এদিকে টফেলের সমালোচনাকে ‘অর্থহীন’ বলেছেন ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) পরিচালক অ্যাশলে জাইলস। তাঁর মতে, ইংল্যান্ড অনাকাঙ্খিত ছয় রান পাওয়ায় সমালোচনা করেছেন টফেল। সাবেক ইংলিশ স্পিনার জাইলস বলেন, ‘এসব কথার কোনোই অর্থ নেই।

খেলায় এমন হতেই পারে। মাঝেমধ্যে আপনি সুবিধা পেতেই পারেন। ইংল্যান্ড দারুণ একটি আসর পার করেছে। শেষ চার বছরে ওরা দাপুটে দল ছিল। শিরোপার দাবীদার ওরাই।’

অন্যদিকে রানার্স আপ দলের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি। ম্যাচ চলাকালীন এই ব্যাপারে কোনো প্রতিবাদ না করলেও ম্যাচ শেষে তিনি বিষয়টিকে লজ্জাজনক বলে দাবি করেন।

নিউজিল্যান্ড দলপতি বলেন, ‘বলটি স্টোকসের ব্যাটে লেগেছে এটা খুবই লজ্জার বিষয়। আমি আশা করব এমনটা আর কখনোই হবে না। আমি সমালোচনা করছি না। শুধু আশা করছি যে এমনটা আর কখনোই হবে না।’

সূত্রঃ জুমবাংলা
Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 0 - Rating 0 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)