বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ইতিহাসে ভারতের সেরা দশ ব্যাটসম্যান

ক্রিকেট দুনিয়া 1st Nov 18 at 2:56pm 965
Googleplus Pint
বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ইতিহাসে ভারতের সেরা দশ ব্যাটসম্যান
ক্রিকেটে বর্তমানে তিনটে ফর্ম্যাট চালু। টেস্ট ক্রিকেট সবচেয়ে পুরনো ফরম্যাট হলেও, এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপ চালু হয়নি এখানে। একদিনের আন্তর্জাতিক ফরম্যাটে বিশ্বকাপ ১৯৭৫ সাল থেকে চলে আসছে। এই প্রতিবেদনে ভারতের সেরা দশ স্কোরারকে তুলে ধরা হলো।

১০ অজয় জাদেজা

বিগত দিনের তারকাদের মধ্যে অন্যতম নাম অজয় জাদেজা। ভারতীয় মিডল অর্ডারে এক সময় ভরসাযোগ্য এই ক্রিকেটার বিশ্বকাপ ক্রিকেটেও সফল ছিলেন। ঠান্ডা মাথায় ম্যাচ বের করে আনতেন জাড্ডু। ১৯৯২, ১৯৯৬ এবং ১৯৯৯ – ভারতের হয়ে এই তিনটি বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছেন জাদেজা।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ২১, রান – ৫২২, গড় – ২৯.০০, ৫০/১০০ – ১/১।

৯. সুনীল গাভাস্কার

ভারতের ব্যাটিং জিনিয়াস ১৯৭৫ ও ১৯৭৯ বিশ্বকাপে টিমের অন্যতম ভরসা ছিলেন। কিন্তু, ১৯৮৩ সালে ভারত চ্যাম্পিয়ন হলেও, সানি তেমন কিছু করে দেখাতে পারেননি। কেরিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ ১৯৮৭-তে। সেবার টিমের হয়ে তিনিই সর্বোচ্চ রান করে দেখান টপ অর্ডারে।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ১৯, রান – ৫৬১, গড় – ৩৫.০৬, ৫০/১০০ – ৪/১।

৮. বিরাট কোহলি

বর্তমান ভারত অধিনায়ক আগামী দিনে তাঁর তৃতীয় বিশ্বকাপ খেলবেন। ২০১১ সালে কোহলি তারকাদের ভিড়ে আনকোরা নাম ছিলেন। ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত তারকা হিসেবে খেললেও, এবার বর্তমান প্রজন্মের সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলবেন।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ১৭, রান – ৫৮৭, গড় – ৪১.৯২, ৫০/১০০ – ১/২।

৭. কপিল দেব

ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডার প্রথম বার বিশ্বজয়ী অধিনায়ক এদেশের। ১৯৮৩, ১৯৮৭ এবং ১৯৯২ – তিনটি বিশ্বকাপেই কপিল ম্যাচ উইনারের ভূমিকা নিয়েছিলেন।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ২৬, রান – ৬৬৯, গড় – ৩৭.১৬, ৫০/১০০ – ১/১।

৬. যুবরাজ সিং

কপিল দেবের পর বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভারতের জন্য ম্যাচ উইনিং অলরাউন্ডার হিসেবে কেউ যদি সফলতা পেয়ে থাকেন, তাহলে তিনি যুবি। ২০০৩ বিশ্বকাপে যুবি তরুণ তারকা হিসেবে খেলেন। ২০০৭ বিশ্বকাপে গোটা টিমই ভরাডুবি করলেও স্টার অরাউন্ডার ২টি ভালো ইনিংস খেলেছিলেন টিমের হয়ে। ২০১১ বিশ্বকাপে যুবি ৩৬২ রান করেন মোট।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ২৩, রান – ৭৩৮, গড় – ৫২.৭১, ৫০/১০০ – ৭/১।

৫. মহম্মদ আজহারউদ্দিন

ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক ১৯৯২, ১৯৯৬ এবং ১৯৯৯ সালে ভারতীয় মিডল অর্ডারের অন্যতম স্তম্ভ ছিলেন। ১৯৯২ সালে ব্যাটহাতে দৌড় ভালোই ছিল। ১৯৯৯ সাল আজ্জু টিমকে সফল করার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু, ওটাই তাঁর কেরিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ হয়ে থেকে যায়।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ৩০, রান – ৮২৬, গড় – ৩৯.৩৩, ৫০/১০০ – ৮/০।

৪. বীরেন্দ্র সেহওয়াগ

বীরু যে মাপের ক্রিকেটার ছিলেন আর যেভাবে খেলতেন, তাতে তাঁর পরিসংখ্যান সবসময়ই ঊর্ধ্বমুখী থেকেছে। তাঁর ব্যাটিং সবসময় দর্শকদের মাতিয়ে রাখত। ২০১১ বিশ্বকাপে নিজের কেরিয়ারের সর্বাধিক ৩৮০ রান করেন। ২০০৩ সালে প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলার আস্বাদ নেওয়ার পর ২০০৭ সালে টিমের ক্ষণস্থায়ী মঞ্চেও দারুণ ব্যাটিং উপহার দিয়ে যান নজফড়ের নবাব।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ২৩, রান – ৮৪৩, গড় – ৩৮.৩১, ৫০/১০০ – ৩/২।

৩. রাহুল দ্রাবিড়

শুরুটা ১৯৯৯ সালে। মিস্টার ডিপেন্ডেবল সেবার ৪৬১ রান করেন। ২০০৭ সালে তাঁর নেতৃত্বেই ভারতের ভরাডুবি হয়। তবে, ২০০৩ সালে টিমের সহঅধিনায়ক ভারতকে ভরসা জুগিয়ে ফাইনাল পর্যন্ত তুলেছিলেন।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ২২, রান – ৮৬০, গড় – ৬১.৪২, ৫০/১০০ – ৬/২।

২. সৌরভ গাঙ্গুলি

ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়ক এবং সর্বকালের সেরা বাঁহাতি ব্যাটসম্যান এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে। সৌরভ ভারতের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান যাঁর বিশ্বকাপের আসরে একহাজারের ওপরে রান রয়েছে। ১৯৯৯, ২০০৩ সালের বিশ্বকাপ সৌরভ কেরিয়ারের উল্লেখ্যযোগ্য মাইলস্টোন। ১৯৯৯ সালে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ক্রিকেটার হিসেবে সফল অভিযানের পর ২০০৩ সালে নেতা হিসেবে টিমকে ফাইনালে নিয়ে যান। প্রথম বার ৩৭৯ রান আর দ্বিতীয়বার ৪৬৫ রান করেন দাদা। বিশ্বকাপের ইতিহাসে শতরান করার দিক থেকে সৌরভ দুই নম্বরে।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ২১, রান – ১০০৬, গড় – ৫৫.৮৮, ৫০/১০০ – ৩/৪।

১. শচীন তেন্ডুলকর

যে কোনও প্রজন্মের সঙ্গে তুলনা টানলেও একবাক্যে স্বীকার করতে তেন্ডলা সর্বকালের সেরা নক্ষত্র ভারতীয় ক্রিকেটের। আধুনিক প্রজন্মে ওডিআই ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল ক্রিকেটার বিশ্বকাপ ক্রিকেটেরেও সর্বোচ্চ স্কোরার। সর্বাধিক ৬টি বিশ্বকাপ খেলার নজিরও তাঁর দখলে। ১৯৯২, ১৯৯৬, ১৯৯৯, ২০০৩, ২০০৭ এবং ২০১১ – দীর্ঘ কেরিয়ারে বিশ্বমঞ্চের সেরা পারফর্মার একমাত্র ব্যাটসম্যান যিনি দুই হাজারের বেশি রান করেছেন। দু’বার পাঁচশোর বেশি রান করেছেন বিশ্বকাপে। শচীন যা রেকর্ড রেখে গিয়েছেন, হয়তা বা ভবিষ্যতে তার ধারাকাছে কেউ যেতে পারবেন কোনওদিন।

এক নজরে ওডিআই বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান :

ম্যাচ – ৪৫, রান – ২২৭৮, গড় – ৫৬.৯৫, ৫০/১০০ – ১৫/৬।

সূত্রঃ newsxplive
Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 0 - Rating 0 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)