‘মেয়েরা এখন প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবে না’

ফুটবল দুনিয়া 10th Aug 18 at 10:47pm 696
Googleplus Pint
‘মেয়েরা এখন প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবে না’

নতুন কোচ অঞ্জু জেইনের অধীনে বদলে গেছে বাংলাদেশ মহিলা ক্রিকেট দল। এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে খেলতে গিয়ে সেখানেও সফল সালমারা। এই সাফল্যের রহস্য উন্মোচন করেছেন দলের সহকারী কোচ দেবিকা পালশিখর।


আগামী নভেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজে কুড়ি ওভারের বিশ্বকাপ খেলতে যাবে বাংলাদেশ মহিলা দল। এরই মধ্যে মিরপুরে মেয়েদের প্রস্তুতি ক্যাম্প শুরু হয়ে গেছে। ঈদের আগ পর্যন্ত ফিল্ডিং ও ফিটনেস ক্যাম্প নিয়ে কাজ করবেন কোচিং স্টাফরা। ঈদের পর শুরু হবে স্কিল অনুশীলন। মঙ্গলবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ দলের উন্নতির চিত্র তুলে ধরেন ভারতীয় এই কোচ।


গত এপ্রিলে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব নেওয়া পালশিখর বলেছেন, ‘বাংলাদেশ দল এখন প্রতিপক্ষ নিয়ে চিন্তা করে না। আমাদের মূল পরিকল্পনা থাকে আমরা নিজেরা কিভাবে ভালো পারফর্ম করতে পারি। আমরা সেই ধারাটাই বজায় রাখতে চাই। আমাদের প্রতিপক্ষ কে- এইসব নিয়ে আমরা চিন্তা করতে চাই না। ভবিষ্যতেও মেয়েরা এই পরিকল্পনাতেই খেলবে।’


মেয়েদের ব্যাটিং ভালো হলেও ফিল্ডিং নিয়ে কিছুটা দুচিন্তায় আছেন সহকারী এই কোচ। তাই এই বিভাগে কঠোর পরিশ্রমের বিকল্প দেখছেন না তিনি, ‘এই মুহূর্তে মেয়েরা সবকিছুই ভালো করছে। আমরা ১৪০ প্লাস রান করেছি বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচগুলোতে। ১৪০ ছাড়ানো স্কোর তাড়া করে এশিয়া কাপে জয় পেয়েছি। আমরা ছোট লক্ষ্যও ডিফেন্ড করে জিতেছি। সব মিলিয়ে ওরা ভালোই করছে।’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘ফিল্ডিংয়ে উন্নতি করার জায়গা আছে। মাঝে মাঝে আমরা ক্যাচ ফেলছি, সেটা খেলায় হতেই পারে। আমরা ফিল্ডিং নিয়ে অনেক কাজ করছি। ছোট ফরম্যাটের ক্রিকেটে ফিল্ডিং পার্থক্য গড়ে দিতে পারে। সুতরাং এখানে ভালো না করলে দলকে বিপদে পড়তে হবে।’


পাওয়ার হিটিংয়ে বরাবরই দুর্বল বাংলাদেশের ব্যাটাররা। যদিও গত কিছুদিন এই জায়গাতেও উন্নতি হয়েছে মেয়েদের। এই উন্নতির কারণ হিসেবে স্বাধীনভাবে মেয়েদের খেলার বিষয়টিই সামনে আনলেন পালশিখর, ‘দলে ২-৩ জন ব্যাটার আছে, যাদের পাওয়ার হিটিংয়ের সামর্থ্য আছে। তারা হয়তো আত্মবিশ্বাসের দিক থেকে কিছুটা পিছিয়ে ছিল। বর্তমান প্রধান কোচ (অঞ্জু জেইন) তাদের নিজের মতো খেলার স্বাধীনতা দিয়েছে, এবং তারা ভালো করছে। সবশেষ খেলা ম্যাচগুলোতে আমরা ২-৩টা করে ছয় পেয়েছি। এটা ভালো দিক। আমরা এই বিষয়ে ফোকাস করছি, ম্যাচে ৬-৭টা করে ছক্কা পেলে অনেকখানি এগিয়ে যাওয়া যায়।’


ব্যাটিং-বোলিং নয়, বাংলাদেশ মহিলা দলের সহকারী কোচের দুশ্চিন্তা অন্য জায়গায়। কোথায়? শুনুন তার মুখেই, ‘ক্রিকেটারদের ব্যাটিং-বোলিং নিয়ে চিন্তিত নই। আমরা তাদের ফিটনেস নিয়েই বেশি ভাবছি, এটা রানিং বিটুইন দ্য উইকেটে কাজে লাগে। ফিট থাকলে এমনিতেই আত্মবিশ্বাস চলে আসে। সিঙ্গেলকে ডাবলে পরিণত করায় আমরা পিছিয়ে। এছাড়া এই ক্যাম্পে দলের ব্যাটারদের পাওয়ার হিটিং নিয়ে কাজ করব।’


এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে সাফল্য পাওয়ার ‘রেসেপি’ জানালেন পালশিখর, ‘আমরা জানতাম এই দলের ভালো করার সামর্থ্য আছে। দলের আত্মবিশ্বাসের কিছুটা অভাব ছিল। ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে সমস্যা ছিল। আমরা ব্যাটিং অর্ডারটা ঠিক করেছি। এখন সবাই জানে তাদের কোথায় খেলতে হবে, কী তাদের দায়িত্ব।’

Googleplus Pint
BDup24.Com
Administrator
Like - Dislike Votes 0 - Rating 0 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)