তারকাদের ধূমপানে আসক্তি

বিবিধ বিনোদন 1st Jun 18 at 9:07am 635
Googleplus Pint
তারকাদের ধূমপানে আসক্তি
পঞ্চাশ কিংবা ষাটের দশকের কোন তরুণের কাছে গিয়ে জিজ্ঞেস করেন, আপনি কেন সিগারেট খান? বেশিরভাগের উত্তর উত্তম কুমারের জন্য। কেননা মহানায়ক উত্তম কুমারকে তাঁরা যেভাবে বিভিন্ন সিনেমায় ধূমপান করতে দেখেছেন, যেভাবে উত্তম কুমারকে তাঁরা একের পর এক সিগারেটের ধোঁয়া ছাড়তে দেখেছেন, তাঁদের যৌবনে সেই আকর্ষণ তাঁরা এড়িয়ে থাকতে পারেননি।

অনেকে শুধুমাত্র উত্তমের জন্যই চেইন স্মোকার হয়ে পড়েছিলেন৷ অনেকে বলে থাকেন, সিগারেট খাওয়াকে শৈল্পিক পর্যায়ে নিয়ে গেছেন উত্তম। পর্দার ভিতরে-বাইরে প্রচন্ড ধূমপায়ী ছিলেন তিনি।

উত্তমের মতো সত্যজিৎ রায়ও ছিলেন আইকনিক ধূমপায়ী। ক্যামেরার পেছনে হোক কিংবা ভরা মজলিস হাতে সিগারেট থাকতো রায় সাহেবের। ঋত্বিক কুমার ঘটক কিংবা বিনয় মজুমদাররাও যতটা নেশায় আচ্ছন্ন হয়ে থাকতেন, তেমনি ধূমপানে ছিল চরম আসক্তি।

আমাদের দেশের তারকাদের মধ্যেও অনেকে আছেন চেইন স্মোকার। হুমায়ুন ফরিদীর ধানমণ্ডির যে বাসায় থাকতেন। তাঁর প্রতিবেশী একদিন তাঁকে নিয়ে গল্প করতে করতে বলেছেন, ছাদে কখনো কখনো ভোর থেকে রাত পর্যন্ত হাতে সিগারেট নিয়ে বসে থাকতে দেখেছি। হুমায়ূন আহমেদও ছিলেন তেমন একজন। অভিনেত্রী ডলি জহুর তাঁকে নিয়ে একবার বলেছিলেন তাঁর মত সিগারেট খেতে আর কাউকে দেখিনি।

জাহিদ হাসান সিগারেট খাওয়ার পরিমাণ আগের তুলনায় অনেকটা কমিয়েছেন। ডাক্তারের কড়া নিষেধ আছে। সে পথে হেঁটেছেন শাকিব খানও। ধূমপানে চরম আসক্তি ছিল তাঁর। হার্টের সমস্যায় ভুগছেন অনেকদিন। ডাক্তারের নিষেধ শর্তে অল্পস্বল্প অভ্যাসটা ছিল।

২০১৫ সালের দিকে ধূমপানকে একেবারে না বলেছেন এ নায়ক। আফজাল হোসেন, শহীদুল আলম সাচ্চু, আজাদ আবুল কালাম, গাজী রাকায়েতদের যারা চেনেন। তাদের সাধারণ বৈশিষ্ট্য তাঁরা প্রচণ্ড ধূমপায়ী।

নায়ক আলমগীর, সোহেল রানা কিংবা ফারুকদের ধূমপানের আসক্তি চেপে রাখতে পারেন না। প্রায়ই তাদের জনসম্মূখে সিগারেটে টান দিতে দেখা যায়। এ নিয়ে সমলোচনার মুখেও পড়েছেন। তবে তা নজড়ে নেননি তাঁরা। আলমগীর একবার বলেছিলেন,‘এটা আমার ওষুধের মতো কাজ করে। অপ্রকাশ্য করার কিছু নেই।’

‘অগ্নি’র শুটিংয়ে ফাইটিং দৃশ্যের শুটিং করতে গিয়ে আহত হয়ে তিন মাস হাসপাতালে ছিলেন আরেফিন শুভ। সার্জারি হয়েছিল। এই ঘটনার পরে জীবনটাকে রুটিনের মধ্যে আবদ্ধ করে ফেলেছেন। নিয়মিত জিমে যান। ড্যান্স চর্চা করেন। ফাইটিং শেখেন। আর সিগারেট খাওয়াটাও ছেড়ে দিয়েছেন। একটা সময়ে প্রচুর সিগারেট খেতেন এ নায়ক।

এ বছর ধূমপান একদম ছেড়ে দিয়েছেন অপূর্ব ও তৌসিফ মাহাবুবও। অপূর্ব ছেড়েছেন ছেলে আয়াশের জন্য। তৌসিফ মাহবুবও প্রচণ্ড ধূমপায়ী ছিলেন। বিয়ের পর তিনিও ঘোষণা দিয়েছেন আর সিগারেট খাবেন না।

মোশাররফ করিমও প্রচণ্ড ধূমপায়ী, নীরব, ইমন কিংবা আফরান নিশোদের ধূমপান নিয়েও আছে নানা গল্প। বেশ কিছু অভিনেত্রী আছেন যারা পর্দায় নয়, বাস্তবেও ধূমপানে আসক্ত। এদের কেউ কেউ আবার চেইন স্মোকারও। বহুবার ঘোষণা দিয়েও রিয়েল লাইফে স্মোকিং ছাড়তে পারেননি তারা। অভিনেত্রীদের মধ্যে চাঁদনী, সানজিদা প্রীতি, মম, প্রসুন, মৌসুমী হামিদ ঠোটের আগা থেকে সিগারেটের সরাননা বললেই চলে।

জয়া আহসানও চেইন স্মোকার তা আশেপাশের মানুষ ভালোই জানেন। নায়িকা প্রসূন জানিয়েছেন, মাস ছয়েক হবে তিনি ধূমপান ছেড়েছেন। প্রেমিকের আপত্তিতেই নাকি তিনি ধূমপান ছেড়েছিলেন। -বাংলা ইনসাইডার
Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 0 - Rating 0 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)