ব্রেক-আপের পর যেসব বলি তারকাদের আর একসঙ্গে দেখা যায়নি

বিবিধ বিনোদন 26th Apr 18 at 8:31pm 965
Googleplus Pint
ব্রেক-আপের পর যেসব বলি তারকাদের আর একসঙ্গে দেখা যায়নি
বলিউডে অনেক নায়ক নায়িকা আছেন যারা এক সময় একে অপরের প্রেমে হাবুডুবু খেয়েছেন। জুটি বেঁধে অভিনয় করে বাজিমাত করেছেন। কিন্তু ব্রেক আপের পর পরবর্তীতে তাদেরকে আর এক সঙ্গে দেখা যায়নি। যেমন-

সালমান খান ও ঐশ্বর্যা রাই— তাদেরকে শেষ দেখা গিয়েছিল ১৯৯৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘হাম দিল দে চুকে সনম’ ছবিতে। তারপর তাদের আর পর্দায় এক সঙ্গে দেখা যায়নি।

অভিষেক বচ্চন ও রানি মুখোপাধ্যায়— বিয়েটা প্রায় ঠিক হয়েই গিয়েছিল এই দুই অভিনেতার। কিন্তু, বাধ সাধে বিধি। ২০০৭ সালে মুক্তি পায় ‘লাগা চুনরি মে দাগ’ ছবিটি। এর পরে আরও দুটি ছবিতে তাঁদের দেখা গিয়েছিল ঠিকই, কিন্তু খুবই ছোট রোলে। পরবর্তীতে অভিষেক বিয়ে করেন ঐশ্বর্য রাইকে।

জন আব্রাহাম ও বিপাশা বসু— ২০১৩ সালের মাল্টিস্টারার ব্লকবাস্টার ‘রেস ২’ ছবিতে দুজনকে দেখা গিয়েছিল শেষবার। তাদের প্রেম বিয়ে নিয়ে কম আলোচান হয়নি। কিন্ত পরবর্তীতে দুজনই দুই দিকে চলে যান।

বিবেক ওবেরয় ও ঐশ্বর্যা রাই— ২০০৪ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘কিউ! হো গয়া না’ ছবিটি। এটিই এই দুই অভিনেতার প্রথম ও শেষ ছবি। তারপর তাদের আর পর্দায় একসঙ্গে দেখা যায়নি।

অক্ষয় কুমার ও রবিনা ট্যান্ডন— ১৯৯৪ সালের ‘মোহরা’ দিয়ে শুরু করে প্রায় এক যুগ একসঙ্গে কাজ করেন এই দুই অভিনেতা। শেষ ছবি ‘আন— মেন অ্যাট ওয়ার্ক’ মুক্তি পায় ২০০৪ সালে।

অভিষেক বচ্চন ও করিশ্মা কপূর— এঁরা শেষবার এক সঙ্গে কাজ করেছিলেন ২০০২ সালের ‘হাঁ মেয়নে ভি প্যার কিয়া’ ছবিতে। এরপর তারা আর কোনো ছবি একসঙ্গে করেননি।

সঞ্জয় দত্ত ও মাধুরী দীক্ষিত— ‘থানেদার’, ‘খলনায়ক’, ‘সাজন’-এর মতো বক্স অফিস হিট ছবির পরে, ১৯৯৭ সালে মুক্তি পায় এই জুটির শেষ ছবি ‘মহান্ত’। তাদের প্রেম নিয়েও অনেক জলগোলা হয়েছিল। শেষ পর্যন্ত তারা ব্রেক আপে চলে যান।

ডিনো মোরিয়া ও বিপাশা বসু— ২০০৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘চেহেরা’। তার আগে আরও চারটি ছবিতে দেখা গিয়েছিল তাদের। কিন্তু, তার পরেই অনেক দিনের সম্পর্কে ইতি টানেন দু’জন।

শাহিদ কাপুর ও কারিনা কাপুর— ২০০৭ সালের এক অনবদ্য রোম্যান্টিক ছবি ছিল ‘যব উই মেট’। কিন্তু, তারপরেই রিয়াল লাইফে সম্পর্কে ইতি টানেন এই দুই কাপুর। তবে, তারপরেও এ যাবৎ দুটি ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছেন শাহিদ-করিনা। -একুশে টিভি
Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 4 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)