টি-টোয়েন্টিতে ৮টি লজ্জার রেকর্ড

ক্রিকেট দুনিয়া 13th Apr 18 at 10:45am 2,075
Googleplus Pint
টি-টোয়েন্টিতে ৮টি লজ্জার রেকর্ড
টি-টোয়েন্টি মানেই তো হওয়ার কথা চার-ছক্কার ফুলজুড়ি। নির্ধারিত ২০ ওভারে সংগ্রহ হবে পাহাড় সমান রান। কিন্তু না, ঠিক সেখানেই রয়েছে লজ্জার রেকর্ড। এক নজরে দেখে নেয়া যাক টি-টোয়ান্টির এমনই কিছু লজ্জার রেকর্ড-

২০১৪ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে মাত্র ৩৯ রানে অল আউট হয় নেদারল্যান্ডস। ইনিংস স্থায়ী হয়েছিল মাত্র ১০.৩ ওভার। আন্তর্জাতিক টি-তে এটাই সর্বনিম্ন স্কোর।
এক ইনিংস সর্বোচ্চ অতিরিক্ত দেয়ার রেকর্ড রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচে। ২০০৭ সালের বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে দুই দল মোট ৪৫টি অতিরিক্ত রান দেয়।

এক ওভারে সর্বাধিক রান দেয়ার রেকর্ডটি রয়েছে ইংল্যান্ডের স্টুয়ার্ট ব্রডের দখলে। ২০০৭ বিশ্বকাপে ব্রডের এক ওভারে ছয়টি ছক্কা মারেন যুবরাজ সিং।

টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হলেও বেশি বার শূন্য করার রেকর্ড রয়েছে শ্রীলঙ্কার তিলকরত্নে দিলশনের। তিনি মোট ১০ বার শূন্য রানে আউট হয়েছেন।

এক ইনিংসে সর্বাধিক রান দেয়ার রেকর্ডটি রয়েছে আয়ারল্যান্ডের ব্যারি ম্যাকার্থির দখলে। চলতি বছর আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে একটি ম্যাচে ৪ ওভারে ৬৯ রান দেন তিনি।

টানা ম্যাচ হারার রেকর্ডটি রয়েছে জিম্বাবোয়ের দখলে। ২০১০ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে টানা ১৬টি ম্যাচ হেরে এই লজ্জার রেকর্ড করে টি-টোয়েন্টিতে।

এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি শূন্য করার রেকর্ডটিও জিম্বাবুয়ের দখলে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে একটি ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মোট ছয়জন ক্রিকেটার কোনো রান না করেই আউট হন।

গত ২০ ডিসেম্বর ২০১৭ ভারতের ১৮০ রানের জবাবে মাত্র ৮৭ রানে শেষ হয় শ্রীলঙ্কার ইনিংস। ৯৩ রানে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে রেকর্ড বইয়ে নাম তুলে নিয়েছে ভারত। -অনলাইন
Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 21 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)