সালমানের শারীরিক কসরতের দৃশ্য দেখে কারারক্ষীদের তাক লেগে গেছে!

বিবিধ বিনোদন 7th Apr 18 at 1:36pm 1,388
Googleplus Pint
সালমানের শারীরিক কসরতের দৃশ্য দেখে কারারক্ষীদের তাক লেগে গেছে!
কারাগারে গিয়েও শরীর চর্চার কথা ভুলেননি বলিউডের অন্যতম বডি বিল্ডার সালমান খান। চার দেয়ালের মধ্যেই নিয়মিত শারীরিক কসরত চালিয়ে যাচ্ছেন। সেলের ভেতরেই করছেন হাঁটাহাঁটি।

বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার দুদফা শরীর চর্চা করেছেন তিনি। তার কসরতের দৃশ্য দেখে কারারক্ষীদের তাক লেগে গেছে। কৃষ্ণসার হরিণ হত্যার দায়ে গত বৃহস্পতিবার ভারতের রাজস্থান রাজ্যের আদালত সালমান খানকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

ওই দিন বিকাল থেকে যোধপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের ২ নম্বর ওয়ার্ডে বন্দি আছেন বলিউড ভাইজান। তার কয়েদি নম্বর ১০৬।

কারা কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, বন্দি হওয়ার পর কারাগারের খাবার না খেলেও ৫২ বছরের সালমান খান শরীরচর্চায় ক্ষান্ত দেননি।

কারা কর্মকর্তা বিক্রম সিং জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কারাগারে আনার পরই সালমান প্রায় এক ঘণ্টা শরীর চর্চা করেন। এরপর রাতে রুটি-ডাল খেতে দেয়া হলেও তা না খেয়ে সেলে কম্বল বিছিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন।

বিক্রম সিং আরও জানান, সালমান মধ্যরাতে ঘুমিয়ে পড়েন। সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কারাগারের ঘণ্টি বাজানো হলে তার ঘুম ভাঙে। তবে এরপর ফের ঘুমিয়ে পড়েন। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ওঠেন তিনি।

এরপর সালমানকে কারাগারের নিয়ম অনুযায়ী চা ও খিচুরির সমন্বয়ে নাশতা দেয়া হয়। তবে তা না খেয়ে কারারক্ষীর কাছে ক্যান্টিন থেকে তার জন্য খাবার আনার কথা বলেন।

এরপর সালমানকে তার পছন্দমতো দুধ ও রুটি এনে দেয়া হয় বলে জানান বিক্রম সিং। তিনি বলেন, দুধ-রুটি খেয়ে শরীর চর্চা শুরু করেন অভিনেতা।

কারাকর্মকর্তা বলেন, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সালমানকে জানানো হয়, শনিবার তার জামিন আবেদনের বিষয়ে আদেশ দেয়া হবে। একথা শোনার পর দুপুরে খাননি তিনি।

পরে শুক্রবার বিকালে বোন আলভিরা ও অর্পিতা এবং অভিনেত্রী প্রীতি জিনতা সালমানের সঙ্গে দেখা করেন।

তার দেখা করার পর শরীর চর্চা শুরু করেন সালমান। অভুক্ত অবস্থায় এ অভিনেতা টানা তিন ঘণ্টা কসরত করেন। এ দৃশ্য দেখে কারারক্ষীরা বিস্মিত হন। বিক্রম সিং বলেন, সালমান খান সত্যিই টাফ ম্যান।

শারীরিক কসরতের পর সালমান গোসল করেন। পরে কারাগার থেকে দেয়া রাতের খাবার খান তিনি।
Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 7 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)