বল টেম্পারিং করেও পার পেয়ে গেছেন যারা

ক্রিকেট দুনিয়া 31st Mar 18 at 6:25pm 1,441
Googleplus Pint
বল টেম্পারিং করেও পার পেয়ে গেছেন যারা
কেপটাউন টেস্টে বল টেম্পারিং করে কড়া শাস্তি পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার এবং ক্যামেরন বেনক্রাফট। সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন তারা। ক্ষমা চেয়েছেন, দায় নিয়েছেন। অনেকেই তাদের প্রতি সহানুভূতিশীল হয়েছেন।

আবার কেউ বলছেন আরও কড়া শাস্তি হওয়া উচিত ছিল। অতীতে এমন ঘটনা ঘটিয়ে অনেক ক্রিকেটার শাস্তি পেয়েছেন; আবার অনেকেই শাস্তি পাননি। জেনে নেওয়া যাক এমন কিছু ক্রিকেটার সম্পর্কে, যারা বল টেম্পারিং করেও পার পেয়ে গেছেন।

মার্কাস ট্রেসকোথিক: মুখের লালার সঙ্গে মিন্ট মিশিয়ে বল বিকৃত করেছিলেন ইংল্যান্ডের সাবেক এই ওপেনার। কিন্তু কারোরই নজরে আসেনি এই ঘটনাটি। দীর্ঘদিন পর আত্মজীবনীতে এই তথ্য ফাঁস করেন ট্রেসকোথিক।

মাইক আথারটন: সাবেক ইংল্যান্ড অধিনায়ক আথারটনকেও একটা সময় বল বিকৃত করতে দেখা গিয়েছিল। পিচের ধুলা কুড়িয়ে তা পকেটে ভরে নেন তিনি। পরে সুযোগ বুঝে বলে লাগানো শুরু করেন আথারটন। কিন্তু দুর্ভাগ্য, পুরো ঘটনাটিই ধরা পড়ে ক্যামেরায়। তবে এই অপরাধে তাকে শুধু জরিমানা করে ছেড়ে দেওয়া হয়।

ক্রিস প্রিঙ্গেল: ক্যারিয়ারের শুরুতেই পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে বল বিকৃতির অভিযোগ ওঠে নিউজিল্যান্ডের এই পেসারের বিরুদ্ধে। ওই সিরিজের তৃতীয় টেস্টে ১১টি উইকেটও পান তিনি। সেই সময় উন্নতমানের প্রযুক্তি না থাকায় সহজেই ছাড় পেয়ে যান তিনি। অবসরের পর বল বিকৃতির কথা স্বীকারও করে নেন ক্রিস।

স্টুয়ার্ট ব্রড: দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে একটি টেস্টে জুতার স্পাইক দিয়ে বল 'ঘষতে' দেখা যায় ব্রডকে। গড়িয়ে আসা একটি বলকে পায়ে চেপে থামান ব্রড। যদিও ব্রডের দাবি ছিল, তিনি এমনিই বলটিকে ওভাবে থামিয়ে ছিলেন। এই ঘটনায় কোনো তদন্ত হয়নি। পরে নাসির হুসেন বলেছিলেন, ব্রড ক্রিকেটের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। তিনি আরও বলেন, এমনটা যদি অন্য কোনও দেশের ক্রিকেটার করত, তা হলে আমরাই বলতাম যে সে প্রতারণা করেছে।

শচীন টেন্ডুলকার: ভারতের 'ক্রিকেট ঈশ্বর' শচীনও টেন্ডুলকারও বল বিকৃতি করেছিলেন। তবে বিষয়টি এখনও বিতর্কিত। ২০০১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বলের সিমের উপর আঙুল ঘষে তা বিকৃত করার চেষ্টা করেন শচীন। এর দায়ে তার ম্যাচ ফির ৭৫ শতাংশ কেটে নেওয়া হয়। নির্বাসিত করা হয় একটি টেস্টে। তবে আইসিসির এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি ভারতীয় সমর্থকরা। ওই সিরিজের তৃতীয় টেস্ট বয়কট করে বিসিসিআই।

সূত্রঃ কালের কন্ঠ
Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 10 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)