স্ত্রী যৌন সংসর্গে রাজি না হওয়ায় শিশুকন্যাকে ধর্ষণ করল সৎ বাবা!

সাধারন অন্যরকম খবর February 7, 2018 3,894
স্ত্রী যৌন সংসর্গে রাজি না হওয়ায় শিশুকন্যাকে ধর্ষণ করল সৎ বাবা!

স্ত্রী যৌন সংসর্গে মত দেয়নি। তিন বছরের শিশুকন্যাকেই ধর্ষণ করল মদ্যপ স্বামী। এমনই অভিযোগ উঠেছে মহারাষ্ট্রের পুণেতে।অভিযুক্ত সম্পর্কে নির্যাতিতা শিশুর সৎ বাবা। ওই গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।


নির্যাতিতা শিশুকন্যার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, ধর্ষণের ঘটনাটি বেশ কয়েকদিন আগেই ঘটেছে। শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে মঙ্গলবার স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে ওই গৃহবধূ থানায় যায়। তারপরেই ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে।


গৃহবধূর অভিযোগ, সোমবার মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফেরে তাঁর স্বামী। ফিরেই স্ত্রীর সঙ্গে যৌন মিলন করতে চায়। তাতে মত দেননি ওই গৃহবধূ। এই অনিচ্ছা প্রকাশকে মোটেও ভাল চোখে নেয়নি স্বামী। রাগে ফুঁসতে থাকে সে। অভিযোগ, এরপরেই তিন বছরের শিশুকন্যাকে তুলে নিয়ে চলে যায় স্বামী।


পরে শিশুকন্যাকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পান তিনি। গোটা ঘটনাই তাঁর কাছে স্পষ্ট হয়ে ওঠে। শিশুটিকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারপরেই স্বামীর বিরুদ্ধে শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।


পুলিশ জানিয়েছে, নির্যাতিতা শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রমাণ মিলেছে। এদিকে অভিযোগ জমা পড়ার পর থেকেই পলাতক ছিল অভিযুক্ত। দিনভর তল্লাশি চালিয়ে বুধবার অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।


ধৃতের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬, ৩৬৩, ৩২৩ ধারায় মামালা রুজু করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে পকসো আইনের আওতায় ধৃতের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।


উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই আট মাসের শিশুকন্যা ধর্ষণের ঘটনা ঘটে রাজধানী দিল্লির সুভাষনগর এলাকায়। এই ঘটনায় অভিযোগের তির যায় নির্যাতিতার তুতো দাদার দিকে। নির্যাতিতার বাবা-মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে ২৮ বছরের অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।


ধৃতের কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছে শিশু অধিকার রক্ষা কমিটির সদস্যরা। নির্যাতিতার বাবা জানান, সকালে কাজে বেরিয়ে যান তিনি। তার কিছুক্ষণের মধ্যে তাঁর স্ত্রীও কাজে চলে যান। এরপরেই নারকীয় ঘটনাটি ঘটায় অভিযুক্ত। কাজ থেকে বাড়ি স্ত্রী দেখে ঘুমন্ত শিশুর বিছানা রক্তে ভাসছে।


ননদকে চেপে ধরতেই সে সত্যিটা স্বীকার করে নেয়। জরুরি ভিত্তিতে শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা জানান, বেশ কয়েকটি অস্ত্রোপচার করতে হবে শিশুটির। এই ঘটনার পরই শিশু নির্যাতনের প্রতিবাদে পথে নামে বিভিন্ন সমাজকর্মীদের সংগঠন। -সংবাদ প্রতিদিন