পেইনকিলার খাওয়ার ক্ষতিকর দিক

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস December 11, 2017 915
পেইনকিলার খাওয়ার ক্ষতিকর দিক

ব্যথা দূর করার জন্য আপনি কী করেন? অনেকেই দ্বারস্থ হন পেইনকিলারের। কাজের চাপ, স্ট্রেসের কারণে মাথা যন্ত্রণা, ঘাড়, পিঠ, কোমরের ব্যথায় ভোগেন অনেকে। আর তখন পেনকিলারের ওপর নির্ভর করতেই হয়। কিন্তু তাতে সাময়িক রেহাই মিললেও এই পেনকিলার খাওয়ার অভ্যাসই ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে আপনার ঘুমে! যার ফলে আরও বাড়ছে স্ট্রেস ও ব্যথা! এমনকি তা পরোক্ষভাবে কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে আপনার ওজন বাড়ারও। এমনটাই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।


বিভিন্ন রিপোর্ট অনুযায়ী, শেষ ১০ বছরে বিশ্বজুড়ে ক্রমাগত গ্যাবাপেন্টিনয়েডস, প্রেগাবিলিন ও ওপিয়েটস জাতীয় পেইনকিলারের বিক্রি বেড়েছে।


মাইগ্রেইন, ডায়াবেটিক নিউরোপ্যাথি ও ক্রনিক ব্যথার জন্য এই ওষুধগুলো খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। নিউক্যাসল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, নিয়মিত ওপিয়েটস ও কার্ডিও-মেটাবলিক ওষুধ খাওয়া মানুষদের মধ্যে ওবেসিটির মাত্রা ৯৫ শতাংশ, ৮২ শতাংশের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ভুঁড়ির সমস্যা রয়েছে এবং ৬৩ শতাংশ উচ্চ রক্তচাপে ভোগেন।


এই বিষয়ে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান গবেষক সোফি ক্যাসিডি বলেন, ওপিয়েটস নির্ভরশীলতা তৈরি করে। তাই এই ধরনের ওষুধ কম সময়ের জন্য প্রেসক্রাইব করা উচিত নয়। দীর্ঘ দিন ধরে এই পেইনকিলার মানুষের শরীরে গেলে ইনসমনিয়া, ওবেসিটিসহ নানা রকম শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে থাকে।


ওপিয়েটস সিডেটিভ হিসেবে কাজ করে যা মানুষকে অলস করে দেয়। সেইসঙ্গে আমাদের স্বাদকোরকেও পরিবর্তন ঘটায়। যার ফলে চিনি ও মিষ্টিজাতীয় খাবারের প্রতি ঝোঁক বাড়তে থাকে। সেই সঙ্গেই এই জাতীয় ওষুধের প্রভাবে স্লিপ অ্যাপনিয়ার সমস্যা হয় যা থেকে হাইপারটেনশনে ভুগতে থাকে রোগী।