আজ দেখুন ‘সুপারমুন’

বিজ্ঞান জগৎ December 3, 2017 1,521
আজ দেখুন ‘সুপারমুন’

পৃথিবীর কাছে আসছে চাঁদ। কাছে আসার এই মহাজাগতিক ঘটনাকে বলা হয় সুপারমুন। দুর্লব এই ঘটনা দেখার সৌভাগ্য হবে শিগগিরই। আগামী তিনটি পূর্ণিমাতেই চাঁদ থাকবে পৃথিবীর কাছাকাছি।


পূর্ণিমার চাঁদকে এর ফলে একটু বেশি বড় ও উজ্জ্বল দেখাবে বলে জানাচ্ছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।প্রথমটি দেখা যাবে আজ রবিবার। একে ‘সুপারমুন’ আখ্যা দিয়ে ইতিমধ্যেই হইচই শুরু হয়েছে। বিজ্ঞানীরা এ-ও বলছেন, পরপর তিনটি পূর্ণিমায় এমন নজির খুব কমই আছে।


আজ, রবিবার পূর্ণিমা। সেই সঙ্গে উপবৃত্তাকার কক্ষপথে পাক খেতে খেতে পৃথিবীর কাছাকাছি চলে আসবে চাঁদ।


আগামী ২ জানুয়ারি এবং ৩১ জানুয়ারির পূর্ণিমাতেও পৃথিবীর কাছে থাকবে চাঁদ। ৩১ জানুয়ারি পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণও রয়েছে। বাংলাদেশ ও ভারতের অনেকাংশে থেকে দেখা যাবে।


বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, পৃথিবীকে কেন্দ্র করে উপবৃত্তাকার (অনেকটা ডিমের মতো) কক্ষপথে পাক খায় চাঁদ। পৃথিবীকে এক বার পাক খেতে তার গড়ে সময় লাগে সাড়ে সাতাশ দিন। এই সাড়ে সাতাশ দিনের মধ্যে চাঁদ এক বার পৃথিবীর কাছে চলে আসে এবং এক বার দূরে চলে যায়। দূরত্বটা যখন সব থেকে কমে যায়, সেটাকে বলে ‘অনুভূ’ অবস্থান। আর তারা যখন একে অপরের থেকে সর্বাধিক দূরে থাকে, সেই অবস্থানকে বলে ‘অপভূ’।


চাঁদ কক্ষপথের যে কোনও অবস্থানে থাকাকালীনই পূর্ণিমা হতে পারে। কিন্তু অনূভূ অবস্থানের কাছাকাছি সময়ে পূর্ণিমা ঘটলে লোকমুখে সেটাই হয়ে যায় ‘সুপারমুন’।


আজ রবিবার পূর্ণিমার সময় পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব কমে ৩ লক্ষ ৫৭ হাজার ৯৮৭ কিলোমিটার হবে। ২ জানুয়ারি তা হবে ৩ লক্ষ ৫৬ হাজার ৮৫০ কিলোমিটার এবং ৩১ জানুয়ারি পৃথিবীর থেকে ৩ লক্ষ ৬০ হাজার ২০০ কিলোমিটার দূরে থাকবে চাঁদ।


চাঁদ ও পৃথিবীর এই ‘রোমান্স’ নিয়ে ‘সুপারমুন’ বলে হইচই শুরু হলেও জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানান, বিজ্ঞানের পরিভাষায় ‘সুপারমুন’ বলে কিছু নেই। পূর্ণিমা এবং চাঁদের অনুভূ অবস্থান— এই দু’টি মিলে গেলেই ‘সুপারমুন’ বলে প্রচার শুরু হয়ে যায়।


(ঢাকাটাইমস/৩ডিসেম্বর/এজেড)