সৌন্দর্য চর্চায় দারুচিনি

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস November 1, 2017 773
সৌন্দর্য চর্চায় দারুচিনি

খাবারে স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি দারুচিনি ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতেও সাহায্য করে।


খাবারে যেমন আলাদা স্বাদ বাড়ায় তেমনি ত্বকে আলাদা দীপ্তি নিয়ে আসতে পারে দারুচিনি।


রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এই মসলা দিয়ে রূপচর্চার কয়েকটি প্রচলিত পন্থা জানা যায়।


ব্রণ কমাতে দারুচিনি ও মধু: দারুচিনির অ্যান্টি-ইনফ্লামাটরি উপাদান ও মধুর অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান একসঙ্গে ব্রণ দূর করতে কাজ করে।


পদ্ধতি: এক টেবিল-চামচ দারুচিনির গুঁড়ার সঙ্গে দুতিন চামচ মধু মিলিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। ব্রণ ও ফুসকুড়ির উপরে মিশ্রণটি লাগান। ১০ মিনিট পরে হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।


মসৃণ ত্বকের জন্য দারুচিনি ও কলার মাস্ক: ত্বক উজ্জ্বল ও মসৃণ করতে দারুচিনি ও কলার মাস্ক খুব ভালো কাজ করে।


পদ্ধতি: একটি পাকাকলা পিষে এক টেবিল-চামচ দারুচিনির পাউডার মেশান। চাইলে এতে দুতিন ফোঁটা মধু যোগ করতে পারেন।


মাস্কটি মুখে লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। ত্বক মসৃণ লাগবে।


বলিরেখা কমাতে দারুচিনি ও জলপাইয়ের তেল: এই মাস্ক ত্বকের বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে এবং যাদের ত্বক শুষ্ক তাদের জন্য এটা বেশ উপকারী।


পদ্ধতি: দুই টেবিল-চামচ জলপাইয়ের তেলের সঙ্গে আধা চা-চামচ দারুচিনির গুঁড়া যোগ করুন। ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে মুখ ও গলায় লাগান। সাত-আট মিনিট পরে ত্বক হালকা মালিশ করুন। এতে তেল ত্বকের ভেতরে প্রবেশ করবে। একটি ভেজা পরিষ্কার কাপড় দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে নিন।


পরিষ্কার ত্বকের জন্য দারুচিনির স্ক্রাব: সব ধরনের ত্বক প্রাকৃতিকভাবে এক্সফলিয়েট করতে দারুচিনি সহায়তা করে।


পদ্ধতি: দুই টেবিল-চামচ অশোধিত দারুচিনির গুঁড়া নিন। খেয়াল রাখবেন যেন ত্বকের পক্ষে খুব বেশি রুক্ষ না হয়। সঙ্গে দুই টেবিল-চামচ মধু ও দই মেশান।


ত্বক পরিষ্কার ও জীবাণু দূর করতে এই স্ক্রাব ব্যবহার করুন।


অসমতা দূর করতে দারুচিনির প্যাক: ত্বকের অসমতা দূর করতে দারুচিনির জুড়ি নেই। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বকের দাগছোপ কমাতে সাহায্য করে।


পদ্ধতি: দুই ফোঁটা নারিকেল তেলের সঙ্গে দুই ফোঁটা দারুচিনির তেল মিশিয়ে ত্বকে দাগের উপরে লাগান। নিয়মিত ব্যবহারে দাগ হালকা হবে ।


তাছাড়া চাইলে দারুচিনি ও মধুর প্যাকও ব্যবহার করতে পারেন। এটাও ত্বকের অসমতা দূর করতে সাহায্য করে।