স্বাস্থ্যের জন্য অমূল্য ভিটামিন ডি

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস May 20, 2017478
স্বাস্থ্যের জন্য অমূল্য ভিটামিন ডি

অনেকেই সূর্যের আলো থেকে পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি গ্রহণ করতে পারেন না। খাবার থেকেও পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি আমরা পাই না। আমাদের ত্বক যখন সূর্যের আলোর সংস্পর্শে আসে তখন ভিটামিন ডি উৎপন্ন হয়। আমরা সবাই জানি যে, ভিটামিন ডি স্বাস্থ্যকর হাড়ের জন্য অত্যাবশ্যকীয়। এটি হাড়ে খনিজ সরবরাহ করে এবং হাড়কে শক্তিশালী ও শক্ত হতে সাহায্য করে। গবেষণায় ধারণা করা হয় যে, ভিটামিন ডি ইমিউন সিস্টেমকে সাহায্য করে। ইমিউন সিস্টেম ঠান্ডা ও কাশি থেকে মুক্ত থাকতে সাহায্য করে, এছাড়াও মাল্টিপল স্ক্লেরোসিস হওয়ার ঝুঁকি কমায়। ভিটামিন ডি এর ঘাটতির সাথে স্থূলতা এবং বিষণ্ণতা জড়িত।


ভিটামিন ডি এর ঘাটতির ঝুঁকিতে কারা আছেন?

যে কোন মানুষই ভিটামিন ডি এর ঘাটতিজনিত সমস্যায় ভুগতে পারেন পর্যাপ্ত সূর্যের আলো না পেলে অথবা সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ না করলে। যদিও কিছু মানুষের সঠিক পরিমাণে ভিটামিন ডি গ্রহণ করা গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তাদের ভিটামিন ডি এর ঘাটতি হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি অথবা তাদের এটি অনেকবেশি প্রয়োজন। এই দলে যারা আছেন তারা হলেন –


· ৫ বছরের কম বয়সের শিশু


· গর্ভবতী এবং দুধ পান করান এমন নারী


· ৬৫ বছরের বেশি বয়সের মানুষ


· সূর্যের আলোতে কম যান এমন মানুষ


· গাড় ত্বকের মানুষ


আপনার করণীয় কী?

স্যমন, সারডিন এবং ম্যাকারেলের মত তৈলাক্ত মাছ এবং ডিম ভিটামিন ডি এর উৎস। এরা ওমেগা ৩ অ্যামাইনো এসিড এবং প্রোটিনের ও ভালো উৎস। তাই এদেরকে আপনার ডায়েটের অংশ করে নিন। এছাড়া বাহিরে যাওয়া, খোলা বাতাসে ঘোরা এবং ব্যায়াম করার ও অনেক উপকারিতা আছে। যদি আপনি মনে করেন যে আপনার ভিটামিন ডি এর ঘাটতি হওয়ার ঝুঁকি আছে তাহলে একজন চিকিৎসকের সাথে কথা বলতে পারেন। তিনি কিছু পরীক্ষার মাধ্যমে আপনার ভিটামিন ডি এর ঘাটতি নির্ণয় করতে পারবেন।


একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের ভিটামিন ডি গ্রহণের দৈনিক মাত্রা হচ্ছে – ১০ মাইক্রোগ্রাম। শিশু এবং কিশোরদের ভিটামিন ডি এর দৈনিক মাত্রা ৭-৮.৫ মাইক্রোগ্রাম। এর চেয়ে বেশি গ্রহণ করা ভালো এটা মনে করবেন না। ভিটামিন ডি এর অতিরিক্ত মাত্রা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে।


সূর্য উদিত হওয়ার পরে বাহিরে কিছুটা সময় কাটান এবং তৈলাক্ত মাছ গ্রহণ করুন। আপনি যদি ভিটামিন ডি এর ঘাটতির ঝুঁকির মধ্যে থাকেন তাহলে শীতের সময়ে এবং সারা বছরই সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করুন।