অন্যায়ের প্রশ্রয় - ঈশপের গল্প

ঈশপের গল্প April 29, 2017 5,132
অন্যায়ের প্রশ্রয় - ঈশপের গল্প

একটা ছেলে ছোটবেলাতেই তার মাকে হারিয়েছিল। ফলে সে তার খালার কাছেই বড় হচ্ছিল। খালা তাকে ‍খুবই আদর করত। তার মা নেই বলে অন্যায়ের পরও কেউ তাকে কখনো বকাবকি করত না।


একদিন ছেলেটি স্কুলের এক সহপাঠির পেন্সিল চুরি করে এনে তার খালাকে দেখাল, খালা তাকে বকাঝকা না করে তার প্রশংসাই করল। ছেলেটি আর একবার তার কোনো বন্ধুর বাড়ি থেকে একটা ভালো জামা চুরি করে এনে তার খালাকে দিল, খালা এবার তার প্রশংসা করল।


এভাবে ছোটখাট জিনিস চুরি করতে করতে ছেলেটি বড় হতে লাগল। বড় হওয়ার পরও চুরি করা অব্যাহত রাখল। এভাবে চুরি করতে করতে একদিন সে ধরা পড়ে গেল। তার চুরির বিচার হলো আদালতে।


সবশুনে বিচারক তার প্রাণদণ্ডের আদেশ দিল। ফাঁসির মঞ্চে নিয়ে যাওয়ার আগে তাকে একজন জিজ্ঞেস করল, “তোমার কি কোনো সাধ আছে? কোনো ইচ্ছে থাকলে বলতে পার।”


এ সময় ছেলেটি তার পাশে কাঁদতে থাকা খালার দিকে তাকিয়ে বলল- “আমি আমার খালার কানে কানে কয়েকটি কথা বলতে চাই।”


অনুমতি দেয়ার পর ছেলেটি তার খালার কানের কাছে মুখ নিয়ে তার কানের লতি কামড়ে ছিড়ে দিল। তারপর বলল, খালা আজ তুমিই আমার প্রাণদণ্ডের কারণ।


প্রথম যেদিন আমি পেন্সিল চুরি করেছিল সেদিন তুমি যদি আমাকে শাসন করতে তাহলে আমাকে এইভাবে মরতে হতো না। আমার এই অধঃপতনের জন্য তুমিই দায়ী।


[গল্পটি ইন্টারনেট হতে সংগ্রহিত]