উত্তর কোরিয়া বিকল্প হিসেবে যেসব অস্ত্র রাখতে পারে

মজার সবকিছু April 23, 2017 877
উত্তর কোরিয়া বিকল্প হিসেবে যেসব অস্ত্র রাখতে পারে

সম্প্রতি উত্তর কোরিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টাপাল্টি তর্ক বিতর্ক চলছে। ট্রাম্পও তার অবস্থানে অনঢ়। দিয়েছেন কঠিন হুশিয়ারি। কিন্তু উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক বোমা আছে মাত্র দশটি। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পেরে ওঠা যাবে না কোনোমতেই। দশটি পারমাণবিক বোমা শেষ হয়ে যাওয়ার পর বিকল্প হিসেবে ব্যবহারের জন্য কিছু অস্ত্রের তালিকা উত্তর কোরিয়ার জন্য-


▶ককটেল বোমা


বাংলাদেশে হরতাল অবরোধ হলেই একটি সহজলভ্য বোমা হচ্ছে ককটেল বোমা। উচ্চশব্দে জনসাধারণের মনে ভীতি আনার জন্য এ ককটেল বোমাই যথেষ্ট। পারমাণবিক বোমার মতো এটি ফুরিয়ে যাওয়ারও কোনো শঙ্কা নেই। দরকার হলে বাংলাদেশ থেকে সাপ্লাই দেয়া হবে।


▶পেট্রোল বোমা


বোতলের ভেতরে পেট্রোল ভরে বাংলাদেশে নিজস্ব অর্থায়নে বহুল আলোচিত বোমার নাম পেট্রোল বোমা। বিস্ফোরিত হবে মুহূর্তেই। তাই উত্তর কোরিয়া চাইলে এই বোমা তৈরির কৌশলও শিখে ফেলতে পারে।


▶হকিস্টিক


এই সরঞ্জামের ব্যবহার আরও সোজা। সামনে পাইলেই পিটাইয়্যা লম্বা করে দেয়া যাবে। অধিক শক্ত ও মজবুত হওয়ায় ভাঙার সম্ভাবনাও কম। উত্তর কোরিয়ানরা চাইলে কয়েকশ’ হকিস্টিক দিয়ে কয়েক লাখ আমেরিকানকে শোয়ায়া দিতে পারে।


▶ভুভুজেলা


পহেলা বৈশাখ থেকে শুরু করে ক্রিকেট ম্যাচের গ্যালারি, ভুভুজেলা কোথায় নেই! এতই মারাত্মক এই অস্ত্র, যে এক পর্যায়ে এটি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ভুভুজেলা বাজিয়ে আমেরিকান সৈন্যদের কান অনায়াসেই ফাটিয়ে দেয়া সম্ভব! এক একটা ভুভুজেলা = দশটি পারমাণবিক বোমা!


▶গ্রেনেড ও হাতবোমা


এগুলো ক্রিকেট বলের মতো। দূর থেকে নিক্ষেপ করা যায়। কোরিয়ান সৈন্যদের ট্রেনিং প্রদান করে হাতে হাতে গ্রেনেড ও হাতবোমা তুলে দিতে পারে। ক্রিকেট বল দিয়ে যেমন স্টাম্প আঘাত করা হয়, তেমনি আমেরিকানদেরও উইকেট ফেলিয়ে দেয়া যাবে সহজেই! এতে ভবিষ্যতে উত্তর কোরিয়ার ক্রিকেটাঙ্গনে প্রবেশের সম্ভাবনাও তৈরি হতে পারে!


▶টিয়ার গ্যাস


এ সরঞ্জামের জনক বাংলাদেশের পুলিশ। নোবেল কমিটির গভীর ষড়যন্ত্রের কারণে এটির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি না মিললেও কোরিয়ানরা পারমাণবিক বোমার বিকল্প হিসেবে বেছে নিতে পারে টিয়ার গ্যাসকে। কোটি কোটি আমেরিকানকে নিমিষেই অন্ধ করে দিতে পারে উত্তর কোরিয়ানরা।


▶কতিপয় মানুষের মোজা


কিছু মানুষের ব্যবহৃত মোজা পারমাণবিক বোমার চাইতেও শক্তিশালী। এমন কয়েক হাজার মোজা দিয়ে নতুন এক ধরনের বিস্ফোরক তৈরি করা যেতে পারে। এক বোমাতেই আমেরিকা কাইত!


তথ্যসূত্রঃ বিচ্ছু, দৈনিক যুগান্তর