নিজের মনের ভীতি কাটিয়ে উঠুন!

লাইফ স্টাইল 29th Mar 17 at 10:19pm 364
Googleplus Pint
নিজের মনের ভীতি কাটিয়ে উঠুন!

যান্ত্রিক এই জীবনে আমাদের সম্মুখীন হতে হয় কত শত চ্যালেঞ্জের। আজ এই পরীক্ষা তো কাল অফিসের আরেক প্রেজেন্টেশন। সবকিছু মিলিয়ে উৎকণ্ঠা কাজ করে। যাকে সহজ ভাষায় বলা হচ্ছে ‘নার্ভাসনেস’। জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক মেখলা সরকার মনে করেন, খানিকটা দুশ্চিন্তাগ্রস্ত থাকা অস্বাভাবিক কিছু নয়। তবে অস্বাভাবিক তখনই হয়ে উঠবে, যখন আপনি সামান্যতেই বেশি চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়বেন। এর থেকে অনেক সময় ব্যক্তির ‘প্যানিক অ্যাটাকও’ হয়ে থাকে।

আর এর থেকে ব্যক্তির মধ্যে নানা ভীতি দেখা দেয়, যা তার স্বাভাবিক কর্মদক্ষতাকে নষ্ট করে দেয়।

পরিত্রাণের উপায়

মেখলা সরকার সহজ কিছু পরামর্শ দিয়েছেন—

* নিজেকে তৈরি রাখুন। নিজেকে অভয় দিন, মনে মনে বলুন, ‘যেকোনো পরিস্থিতির জন্য আমি প্রস্তুত।’ আমি-ই পারব, এই একটি বাক্য কিন্তু আপনার ভীতি অনেকটাই কমিয়ে দেবে।

* যতটা সম্ভব নিকোটিন, ক্যাফেইন এড়িয়ে চলুন। নিয়মিত ব্যায়াম, পরিমিত খাবার এবং সময়মতো ঘুমের বিকল্প নেই।

* দুশ্চিন্তা কমাতে প্রতিদিন সকালে ইয়োগা করতে পারেন। এটি আপনার ভেতরকার মানসিক চাপ অনেকটাই কমিয়ে দেবে।

* সবার মধ্যে শ্রেষ্ঠ হওয়ার ইচ্ছাও কিন্তু আপনাকে মানসিক ভীতির দিকে এগিয়ে নিতে পারে। হ্যাঁ, আপনিই পারবেন, কিন্তু মানসিক প্রস্তুতি রাখুন, যাতে কাঙ্ক্ষিত ফল না এলেও মেনে নিতে পারেন। কেননা, কোনো পরাজয়ই স্থায়ী নয়।

* মনে ভয়টাকে রেখে দিলে চলবে না। নতুবা এর ফল হতে পারে হিতে বিপরীত। কারও সঙ্গে আলোচনা করুন।

* নিজেকে ব্যস্ত রাখার চেষ্টা করুন। যে কাজ নিয়ে আপনি দুশ্চিন্তাগ্রস্ত, সেই কাজই বারবার অনুশীলন করুন।

* কিছুটা সময় রাখুন শুধুই নিজের জন্য। সময় পেলেই একটু বেড়িয়ে আসুন। তাতে কাজের চাপ এবং ভীতি অনেকটাই কমে আসবে। মস্তিষ্ক নতুন উদ্দীপনা পাবে।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 22 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)