আপনি কি খেতে খেতে ঢক ঢক করে পানি পান করছেন?

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস March 28, 2017 1,058
আপনি কি খেতে খেতে ঢক ঢক করে পানি পান করছেন?

আপনি কি খেতে খেতে ঢক ঢক করে পানি পান করছেন? কিংবা খেয়ে উঠেই পানি মাস্ট? আপনার কি যখন-তখন পানি পানের অভ্যেস? ঘুমনোর আগে পেট ভরে পানি পান করছেন? ভুল করছেন। ইচ্ছেমতো পানি পান করবেন না। পানি পান করুন বুঝে, নিয়ম মেনে।


তাহলে সারাদিনে কতটা পানি পান করবেন?


চিকিৎসকরা বলছেন, যার যত ওজন, তাকে ৩০ দিয়ে ভাগ করলে যে সংখ্যাটা বেরোবে, ঠিক তত লিটার পানি দৈনিক পান করতে হবে তাকে।


কিন্তু, কখন কতটা পানি পান করতে হবে?


চিকিৎসকরা বলছেন, লাঞ্চ বা ডিনারের ৩০ মিনিট আগে পানি পান করতে হবে। হজমশক্তি বাড়বে।


খাবার খাওয়ার মাঝে ২ ঢোঁক পানি খাওয়া যেতে পারে। তার বেশি নয়। কারণ, জল হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিডের সঙ্গে মিশে তার ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। ফলে, খাবার হজম হয় না।


গোসল করার আগে ১ গ্লাস পানি পান করলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে।


চা বা কফি খাওয়ার আগে ১ গ্লাস পানি পান করলে অ্যাসিডিটির সম্ভাবনা থাকে না।


ব্যায়ামের ১০ মিনিট আগে ১ গ্লাস পানি পান করলে এনার্জি বজায় থাকবে।


ব্যায়ামের ২০ মিনিট বাদে ২ গ্লাস পানি পান করলে শরীরের আর্দ্রতা বজায় থাকবে।


সন্ধেয় টিফিন করার আগে ১ গ্লাস পানি পান করলে পেট আইঢাই করবে না।


টেনশনের সময় ১ গ্লাস পানি পান করলে অনেকটাই রিল্যাক্সড লাগবে।


ঘুমনোর আগে ১ গ্লাস পানি পান করলে স্ট্রোক এবং হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা কমে। তবে পেট ভরে পানি পান করলে বিপদ মারাত্মক। ইনসমনিয়ার মতো রোগের সম্ভাবনা বাড়ে। ভয়ঙ্কর প্রভাব পড়ে কিডনিতে। কারণ, ঘুমনোর সময় শরীর থাকে নিষ্ক্রিয়। এই সময় বেসাল মেটাবলিক রেট সবথেকে কম। ফলে, কিডনির ওপর চাপ পড়ে।


সকালে ঘুম থেকে উঠে ২ গ্লাস পানি পান করলে শরীরের বর্জ্য পদার্থ বেরিয়ে আসতে সাহায্য করবে। তাই পানি পান করুন মেপে। নিয়ম মেনে।


- ইন্টারনেট