ত্বক ফর্সায় ফলের খোসা!

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 17th Mar 17 at 5:14pm 1,055
Googleplus Pint
ত্বক ফর্সায় ফলের খোসা!

ভাবছেন কী আবত-তাবল বোকছি, তাই তো? কিন্তু বাস্তবিকই ফলের খোসা ত্বককে উজ্জ্বল করতে দারুন কাজে আসে। কারণ এতে রয়েছে একাধিক পুষ্টিকর উপাদান, যা ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটিয়ে ত্বককে ফর্সা এবং প্রাণবন্ত করে তোলে।


ফর্সা ত্বক পেতে কে না চায় বলুন। তাই তো গত কয়েক বছরে সারা বিশ্বে বিউটি প্রডাক্টের রমরমা এত চোখে পড়ার মতো বেড়েছে। আপনার মনেও যদি এমন ইচ্ছা থাকে, তাহলে এটি আপনার জন্যই লেখা।


ফলের খোসাতে যেমন অনেক ধরনের পুষ্টিকর উপাদান থাকে, তেমনি নানা ধরনের ভিটামিনও থাকে প্রচুর পরিমাণে। তাই তো ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে এদের কাজে লাগানোর পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।


কলার খোসা

একাধিক ত্বকের রোগ সারানোর পাশাপাশি কলার খোসায় উপস্থিত ভিটামিন এবং পুষ্টিকর উপাদান ত্বককে উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত করতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই সপ্তাহে কম করে দু'বার কলার খোসা ভালো করে মুখে ঘষার অভ্যাস করুন। এমনটা করলে দেখবেন অল্প দিনেই ত্বক সুন্দর হতে শুরু করেছে।


কমলা লেবুর খোসা

একাধিক প্রসাধনিতে কমলা লেবুর খোসা দিয়ে তৈরি পাউডার ব্যবহার করা হয়। কেন জানেন? কারণ ত্বককে সুন্দর করতে এর কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। তাই তো প্রতিদিন যদি কমলা লেবুর খোসা মুখে ঘষা যায়, অথবা এটা দিয়ে বানানো কোনও ফেস প্যাক মুখে লাগানো যায়, তাহলে ফর্সা ত্বক পাওয়ার স্বপ্ন পূরণে একেবারেই সময় লাগে না।


পেঁপের খোসা

সেই আদিকাল থেকে ত্বককে সুন্দর করতে পেঁপের খোসার ব্যবহার হয়ে আসছে। কারণ এতে উপস্থিত একাধিক পুষ্টিকর উপাদান ত্বককে উজ্জ্বল করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।


ডালিম খোসা

এতে রয়েছে এমন কিছু উপাদান, যা ত্বকের উপরিঅংশে জমে থাকা মৃত কোষের আস্তরণকে সরিয়ে ফেলে। সেই সঙ্গে ত্বকের পি এইচ লেভেলকে স্বাভাবিক করে ত্বককে উজ্জ্বল করে তোলে।


লেবুর খোসা

ত্বক উজ্জ্বল করতে লেবুর রসের ভূমিকা নিয়ে কারও মনে সন্দেহ না থাকলেও লেবুর খোসাও যে একই কাজ করে, তা অনেকে বিশ্বাস করতে চান না। কিন্তু একথা ঠিক যে লেবুর খোসা দিয়ে বানানো পাউডার ফেস প্যাকের সঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগালে দারুন ফল পাওয়া যায়। এই মিশ্রনটি ত্বককে উজ্জ্বল করার পাশাপাশি নানা রকমের রোগের হাত থেকেও রক্ষা করে।


আপেলের খোসা

এতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় স্কিন হোয়াইটনিং প্রপাটিজ। যে কারণে প্রতিদিন এটি মুখে লাগালে ত্বক অল্প দিনেই ফর্সা হতে শুরু করে। ভালো ফল পেতে প্রথমে আপেলের খোসাটা ছাড়িয়ে নিন। তারপর খোসগুলো একবাটি পানিতে ডুবিয়ে কিছুক্ষণ পানিটা গরম করুন। এরপর সেটি ঠাণ্ডা করে ধীরে ধীরে সারা মুখে লাগান। এমনটা কয়েক সপ্তাহ করলেই ফল পাবেন একেবারে হাতে-নাতে।


নাসপাতির খোসা

এতে রয়েছে ফাইবার, যা ত্বককে উজ্জ্বল করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। এটি সরাসরি মুখে না লাগিয়ে এক বাটি পানিতে কিছুক্ষণ চুবিয়ে রেখে ওই পানিটা কিছুক্ষণ গরম করে নিন। তারপর সেটি ঠাণ্ডা করে সারা মুখে লাগান। মাসে মাত্র একবার এইভাবে নাসপাতির খোসা মুখে লাগালেই দেখবেন ত্বক কেমন ফর্সা হয়ে ওঠে।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 48 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)