আপনার জন্মের সময় দেখে বলে দেওয়া সম্ভব আপনার চরিত্রের সম্পর্কে

লাইফ স্টাইল March 13, 2017 855
আপনার জন্মের সময় দেখে বলে দেওয়া সম্ভব আপনার চরিত্রের সম্পর্কে

শুনতে একটু আজব লাগছে, তাই তো? বাস্তবে কিন্তু একমটা সম্ভব। আপনি কোন সময়ে জন্মেছেন সেই সময় বিশ্লেষণ করে আপনি মানুষ হিসেবে কেমন, তা কিন্তু অনেকাংশেই বলে দেওয়া যেতে পারে। তাই তো কথায় আছে না, সময়ই হল সব ঘটনার মূলে, সময় ছাড়া আমাদের জীবন যেন সাদা পাতা!


হিন্দু শাস্ত্রেও এই বিষয়ের উল্লেখ পাওয়া যায়। তাই তো অ্যাস্ট্রোলজির মতো আদি পদ্ধতিতেও জন্মের সময়কালকে গুরুত্ব দিয়েই জন্ম পত্রিকা বানানো হয়। এমনটা মনে করা হয় যে জন্মের সময়, গ্রহ-নক্ষত্রের অবস্থানকে সামনে আনে, যা বিশ্লেষণ করে কোনও মানিুষের চরিত্র এবং তার জীবনের গতিপথ সম্পর্কে বলে দেওয়া সম্ভব হয়। তাই নিজের জন্মের সময় সম্পর্কে জ্ঞান থাকা একান্ত প্রয়োজন।


এই প্রবন্ধে বিস্তারিত আলোচনা করা হল, কোন সময়ে জন্মালে কেমন চরিত্র হয়, সে সম্পর্কে।


সকাল ৬-৮ টার মধ্যে:

এই সময়ে যারা জন্মায় , তাদের জীবনে নানা সময় নানা রকমের সব আজব ঘটনা ঘটার সম্ভবনা থাকে। এরা খুব শান্ত হন। তবে খরচা করতে খুব ভালবাসেন। যে কারণে জীবনের কোনও না কোনও সময়ে অর্থনৈতিক সমস্যার সম্মুখিন হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়।


সকাল ৮-১০ টার মধ্যে:

এরা জীবনে ভাল বন্ধুদের সঙ্গ পান। খুব মিশুকেও হন এই সময়ে জন্ম নেওয়া মানুষেরা। অর্থনৈতিক দিক থেকে এরা সব সময় খুব ভাল জায়গায় থাকেন। কেন এমনটা হয় জানেন? কারণ এরা সারা জীবন টাকাকে খুব গুরুত্ব দেন। তবে এমন মানুষদের জীবনে শান্তি থাকে না একেবারেই। নানা কারণে এরা অবসাদে ভুগতে থাকেন। এক কথায় টাকা তো অনেক থাকে, কিন্তু এদের মানসিক শান্তি একেবারে থাকে না বললেই চলে।


১০-১২ টার মধ্যে জন্ম নেন যারা:

যে কাজই করুক না এই সময়ে জন্ম নেওয়া মানুষেরা সব সময় সফল হন। তাই তো এদের জীবনে কখনও অসফলতা স্বাদ পেতে হয় না। সহজ কথায় এই সময়ে জন্ম নেওয়াটা সত্য়িই ভাগ্যের বিষয়।


১২-২ টোর মধ্যে জন্ম নিলে:

এদের সারা জীবন নানা কারণে খুব ভ্রমণ করতে হয়। সেই সঙ্গে এমন মানুষদের ভাগ্য খুব ভাল হয়। শুধু তাই নয়। এরা খুব বুদ্ধিমানও হন। ভাবতে পারছেন, ভাগ্যবান এবং বুদ্ধিমান একই সময়ে! তবে চারিত্রিক দিক থেকে এরা খুব দয়ালু হন।


২-৪ টের মধ্যে জন্ম নিলে:

এরা মূলত অর্থনীতি সম্পর্কিত কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকেন। আর জীবনে কোনও না কোনও সময়ে আইনি ঝামেলায় জড়িয়ে পরার আশঙ্কা থাকে।


বিকাল ৪-৬ টার মধ্যে যারা জন্মান:

এদের সারা জীবন কিছু কিছু না কর্তব্য পালন করে যেতে হয়। আর বিয়ের পরে এদের জীবন একেবারে বদলে যায়। এক কথায় এদের জীবনের উপর বিয়ের একটা মারাত্মক প্রভাব পরে। প্রসঙ্গত, এমন মানুষেরা এমন চাকরি করেন যাতে অনেকের সঙ্গে প্রতিনিয়ত কথা বলে যেতে হয়।


সন্ধ্য়ে ৬-৮ টা:

এই সময়ের মধ্যে যারা জন্মান তাদের জীবনের গতিপথ অনেকটাই প্রভাবিত হয় বন্ধুবান্ধব এবং কাছের লোকেদের দ্বারা। এদের জীবনে পরিবার সব সময় দ্বিতীয় স্থানে থাকে, প্রথম স্থানে থাকে সামাজীক জীবন।


রাত ৮-১০ টার মধ্যে যারা জন্মান:

এরা খুব ক্রিয়েটিভ হন। সেই সঙ্গে এরা নানা রকমের গুণের অধিকারিও হন। শুধু তাই নয়, চরিত্র হিসেবে এরা খুব পজেটিভ হন। কোনও বাজে চিন্তা এদের সহজে প্রভাবিত করতে পারে না। আর কর্মজীবনে এরা কুব সফল হন, কারণ যে কাজ নিয়ে এরা প্যাশনেট, সেই কাজটাকে এরা জীবিকা হিসেবে গ্রহন করে থাকেন।


রাত ১০- ১২ টার মধ্যে যারা জন্মান:

এদের বেসিরভাগই জমি-বাড়ি সম্পর্কিত ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত হন। সেই সঙ্গে এদের জীবনের ভাল-মন্দ, যাই ঘটুক না কেন তার জন্য এরা নিজেরাই দায়ী থাকেন। তাই তো এরা জীবনে সফলও হন, সেই সঙ্গে মাঝে মাঝে অসফলতার স্বাদও পেতে হয়।


১২-২ টার মধ্যে য়ারা জন্মান:

এই সময়ে জন্মান যারা, তারা খুব ইনটেলেকচুয়াল হন। এরা ঘুরতে খুব ভালবাসেন এবং অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় হন। প্রসঙ্গত, এরা মূলত মিডিয়া রিলেটেড কাজের সঙ্গে যুক্ত হন।


২-৪টের মধ্যে যারা জন্মায়:

এই সময়ে যারা জন্মান, তারা মূলত ফুড ইন্ডাস্ট্রি সম্পর্কিত কাজের সঙ্গে যুক্ত হন। এদের পরিবারিক এবং অর্থনৈতিক অবস্থা সারা জীবনই বেশ ভাল থাকে।


সূত্রঃ বোল্ডস্কাই