গ্রীষ্মে ব্রণ থাক দূরে

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস March 6, 2017 964
গ্রীষ্মে ব্রণ থাক দূরে

গরমে প্রায় সবারই ব্রণের সমস্যায় পড়তে হয়। তবে সঠিক যত্ন এই সমস্যা দূর করতে পারে।


ভারতের ‘বিউটি অ্যান্ড কার্ভস ক্লিনিক’য়ের রূপবিশেষজ্ঞ মেঘা শাহ গরমের সময় হওয়া ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তনের পরমর্শ দেন।


- ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে অতিরিক্ত চিনি এবং পরিশোধিত চিনির তৈরি খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। আইসক্রিম, চকলেট, কেক, বার্গার পিৎজা ইত্যাদি খাবার এড়িয়ে চলতে হবে। এছাড়া অতিরিক্ত তেলযুক্ত খাবারও ত্বকের জন্য ক্ষতিকর।


- যে ধরনের খাবার খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে সেই ধরনের খাবার এড়িয়ে চলতে হবে। ফল ও শাক-সবজি সহজে হজম হয়ে যায়। তাই খাদ্যতালিকায় এই ধরনের খাবার রাখা দরকার। কারণ হজম প্রক্রিয়া ভালোভাবে কাজ না করলে এর প্রভাব পড়বে ত্বকে। যা ব্রণ এবং অন্যান্য সমস্যা তৈরি করে।


- গ্রীষ্মে ঘাম বেশি হয়, এর সঙ্গে ত্বকের তৈলাক্ত ভাবও বৃদ্ধি পায়। ঘাম ও তেল ত্বকে জমে থাকলে সেখানে ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণ হয়ে ব্রণ তৈরি করে। তাই ত্বক ভালোভাবে পরিষ্কার করা বেশ জরুরি। দিনে অন্তত দুবার মুখ ধুতে হবে এবং সপ্তাহে একবার এক্সফলিয়েটর ব্যবহার করতে হবে। এতে ত্বকের লোমকূপ গভীর থেকে পরিষ্কার হয়।


- স্যালিসিলিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ মাস্ক ত্বক গভীর থেকে পরিষ্কার করে এবং ব্রণ দূরে রাখে। পাশাপাশি টি ট্রি অয়েল ব্রণ নিরাময়ে বেশ কার্যকর।


- শীতে যে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতেন তা গ্রীষ্মের জন্য উপযুক্ত নয়। তাই গরমকালে জেল বা পানিসমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার ক্রিম বেছে নিতে হবে। এতে ঘামলেও ত্বক তেলতেলে হয়ে উঠবে না। এই মৌসুমে বাড়তি তৈলাক্ত ময়েশ্চারাইজারের কারণে অনেক ক্ষেত্রে লোমকূপ বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এতে ব্রণ বৃদ্ধি পায়।


- গ্রীষ্মের জন্য প্রসাধনী কেনার আগে এর উপাদানগুলো দেখে নেওয়া উচিত। রেটিনল, গ্লাইকোলিক অ্যাসিড, বেনজয়েল পারঅক্সাইড ইত্যাদি উপাদানগুলো গরমে ত্বকের ব্রণ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। ‘নাইট ক্রিম’ বাছাইয়ের ক্ষেত্রে এই উপাদানগুলো দেখে নিলে ত্বকের ব্রণের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।


- যত্ন নেওয়ার পরও যদি ব্রণের সমস্যায় লাগাম টানা না যায় তাহলে ত্বক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া জরুরি।