শুষ্ক ত্বকের যত্নে গ্লিসারিন

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 1st Mar 17 at 6:31pm 2,121
Googleplus Pint
শুষ্ক ত্বকের যত্নে গ্লিসারিন

প্রতিদিন ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করার পরেও যদি ত্বকে শুষ্ক ও টানটান ভাব জাগে তাহলে বরং গ্লিসারিন ব্যবহার করুন।

রুপচর্চাবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে সাবান, ময়েশ্চারাইজার, বডি লোশন, ফেইস মাস্ক ও অন্যান্য প্রসাধনিতে গ্লিসারিন ব্যবহার করালে ত্বকের আর্দ্রভাব বজায় থাকে।

তাৎক্ষনিক আর্দ্রতার জন্য: দুই টেবিল-চামচ পানি বা গোলাপ জলের সঙ্গে এক টেবিল-চামচ গ্লিসারিন মিশিয়ে নিন। তুলার বলের সাহায্যে সারা মুখে বিশেষ করে শুষ্ক স্থানে ব্যবহার করুন। দশ মিনিট পরে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে সঙ্গে সঙ্গেই ত্বক আর্দ্র হবে।

ফেইস প্যাকে গ্লিসারিন: ফেইস প্যাক ব্যবহারের পর ত্বকের শুষ্কভাব এড়াতে গ্লিসারিন ব্যবহার করতে পারেন। এক টেবিল-চামচ পানির সঙ্গে এক টেবিল-চামচ গ্লিসারিন মিশিয়ে তা মাস্ক তৈরিতে ব্যবহার করুন।

কোল্ড ক্রিমে গ্লিসারিন: কোল্ড ক্রিমের কার্যকারিতা বাড়াতে গ্লিসারিন যোগ করুন। হাতের তালুতে এক পয়সা পরিমাণ কোল্ড ক্রিম নিয়ে তাতে এক থেকে দুই ফোঁটা গ্লিসারিন মেশান। তারপর ব্যবহার করুন। এতে ত্বক দীর্ঘক্ষণ নমনীয় থাকবে।

বডি লোশনে গ্লিসারিন: কয়েক ফোঁটা পানির সঙ্গে এক-দুই ফোঁটা গ্লিসারিন মিশিয়ে তা বডিলোশনের বোতলে ঢালুন। ভালোভাবে ঝাকিয়ে তা ব্যবহার করুন। এতে লোশনের কার্যকারিতা বাড়বে।

লিপ বামে গ্লিসারিন: লিপ বামের পাত্রে কয়েক ফোঁটা গ্লিসারিন ঢালুন। এটি ব্যবহারের সঙ্গে সঙ্গেই পাওয়া যাবে নরম কোমল ঠোঁট।

মধুর সঙ্গে: দুতিন ফোঁটা পানির সঙ্গে এক টেবিল-চামচ গ্লিসারিন মিশিয়ে তাতে আধা কাপ মধু নিন। এটি আপনি ফেইস মাস্ক হিসেবে অথবা সারা শরীরে বিশেষ করে কনুই ও হাঁটুর শুষ্কতা দূর করতে ব্যবহার করুন। পনের মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন।

গ্লিসারিন দিয়ে গোসল: গোসলের পরে এক মগ পানিতে এক টেবিল-চামচ গ্লিসারিন মিশায়ে তা শরীরে ঢালুন। তবে সাধারণ পানি দিয়ে আর ধুয়ে ফেলবেন না। এভাবে গোসল করা হলে তা আপনার সারা শরীরের আর্দ্রতা ধরে রাখবে। ফলে সারাদিনই ত্বকের নমনীয়তা অনুভব করবেন।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 31 - Rating 3 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)