রেসিপি : বাসি ভাতের খিচুড়ি

রেসিপি টিপস February 9, 2017 763
রেসিপি : বাসি ভাতের খিচুড়ি

রাতে বেঁচেছে ভাত! সেটা দিয়ে তৈরি করুন সকাল বা দুপুরের খাবার।


» উপকরণ

দুই জনের পরিমাণ ভাত। মুগ ও মসুর ডাল আধা কাপ করে। ছোলা ও মাষকলাইয়ের ডাল ১/৪ কাপ করে। সবজি ও শিমের দানা আধা কাপ, মটরশুঁটি আধা কাপ, গাজরকুচি ১টি, বাঁধাকপি-কুচি ১ কাপ। পেঁয়াজকুচি ২,৩টি। আদা ও রসুন বাটা ২ টেবিল-চামচ করে। হলুদ,মরিচ, জিরাগুঁড়া ১ চা-চামচ করে। আস্ত গরম মসলা প্রয়োজন মতো। কাঁচামরিচ ৫,৬টি। সাদা তেল ২,৩ টেবিল-চামচ। লবণ স্বাদ মতো।


আপনি যদি বেঁচে যাওয়া অথবা বাসি মাংস অথবা অন্য যে কোনো তরকারি দিতে চান তাহলে হলুদ, মরিচের গুঁড়া এবং আদা ও রসুন বাটা কমিয়ে দেবেন।


ফোঁড়নের জন্যে : পেঁয়াজকুচি ১/৪ কাপ। রসুন থেঁতো করা আস্ত ১টি। আস্ত জিরা ১ চা-চামচ। শুকনামরিচ ৪,৫টি। তেজপাতা ২,৩টি। সরিষার তেল পরিমাণ মতো।


» পদ্ধতি

ডাল ধুয়ে ভিজিয়ে রাখুন। ছোলার ডাল আলাদা করে ভেজাবেন। ডাল ফুলে গেলে পানি ঝরিয়ে নিন।


হাঁড়িতে তেল গরম করে পেঁয়াজ ভেজে তাতে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা কষিয়ে নিন। তারপর ছোলার ডাল কষিয়ে এমনভাবে পানি দিন যেন ছোলার ডাল প্রায় সিদ্ধ হয়ে যায়। পানি শুকিয়ে গেলে সবজি মিশিয়ে গাজর ছাড়া অন্য সবজিগুলো কষিয়ে নিন।


সব সবজি প্রায় সেদ্ধ হয়ে গেলে অন্যান্য ডাল মিশিয়ে আবার কষাতে থাকুন। ডালের রং পরিবর্তন হয়ে আসলে রান্না করা ভাত মিশিয়ে পরিমাণ মতো পানি দিন।


কী রকম নরম খিচুড়ি করতে চান, সেটার উপর পানির পরিমাণ নির্ভর করে।


পানি ফুটে উঠলে গাজর ও চেরা কাঁচামরিচ মিশিয়ে নিন। এইসময়ে আগের বেঁচে যাওয়া মুরগির মাংস রান্না, সবজির তরকারি, আচার বা তেঁতুল মিশিয়ে নিতে পারেন।


ডাল সিদ্ধ হয়ে গেলে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে রাখুন।


অন্য একটি প্যানে একটু বেশি পরিমাণ সরিষার তেল গরম করে আস্ত জিরা, তেজপাতা ও শুকনামরিচ ফোঁড়ন দিয়ে পেঁয়াজ ও রসুন বাদামি করে ভেজে খিচুড়ির মধ্যে ঢেলে মিশিয়ে নিন। উপরে গরম মসলাগুঁড়া ছড়িয়ে আবার ঢেকে রাখুন।


গরম গরম পরিবেশন করুন।