ঘরোয়া উপায়ে দূর করুন পুড়ে যাওয়া জিহ্বার ব্যথা

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস February 8, 2017 521
ঘরোয়া উপায়ে দূর করুন পুড়ে যাওয়া জিহ্বার ব্যথা

আপনার অনেক বেশি ক্ষুধা লাগলে খাবার ঠান্ডা হওয়ার জন্য আর অপেক্ষা করতে না পেরে যখন গরম খাবার মুখে পুরে দেন, তখনই আপনার জিহ্বাটি খাবারের তাপের কারণে পুড়ে যায়। এটি ছোটদের বেশি হলেও মাঝে মাঝে বড়দেরও হতে দেখা যায়। এভাবে গরম খাবার দিয়ে জিহ্বা পুড়ে যাওয়ার পর তা অসাড় বা অনুভূতিহীন হয়ে যায় এবং এই অস্বস্তি থাকে বেশ কিছুদিন। পোড়া জিহ্বার ব্যথা ও অস্বস্তি দূর করতে সাহায্য করবে যে উপাদানগুলো সেগুলোর বিষয়ে জেনে নিই চলুন।


১। বরফ

জিহ্বা পুড়ে গেলে একে দ্রুত ঠান্ডা করার ব্যবস্থা করতে হবে। এর ফলে ব্যথা কমবে এবং দ্রুত ভালো হবে। এর জন্য সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে আইস কিউব বা বরফের একটি টুকরো মুখের মধ্যে নিয়ে চুষতে থাকুন। আইস কিউবের পরিবর্তে আইসক্রিম বা ঠান্ডা দই খেতে পারেন।


২। কুলকুচি করুন

১ কাপ লবণ মেশানো পানি দিয়ে কুলকুচি করলে দ্রুত জিহ্বার পোড়া নিরাময়ে সাহায্য করবে। লবণ মুখের এসিডকে নিরপেক্ষ করবে এবং ব্যথা দূর করতে সাহায্য করবে।


৩। চিনি

জিহ্বা পুড়ে গেলে ১ চামচ চিনি জিহ্বার উপর দিয়ে রাখুন। এতে জিহ্বার ব্যথা দ্রুত কমবে এবং নিরাময়ও হবে দ্রুত।


৪। মসলাযুক্ত ও এসিডিক খাবার থেকে দূরে থাকুন

জিহ্বা পুড়ে গেলে কয়েক ঘন্টা গরম খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলতে হবে এটি বলার অপেক্ষা রাখেনা। মসলাযুক্ত ও এসিডিক খাবার যেমন- আনারস খাওয়াও এড়িয়ে চলতে হবে। এ ধরনের খাবার জিহ্বার যন্ত্রণা বৃদ্ধি করতে পারে।


৫। মুখ দিয়ে শ্বাস নিন

জিহ্বা পুড়ে গেলে জিহ্বা বের করে মুখ দিয়ে শ্বাস নিন। এই প্রতিকারটিকে বিদঘুটে মনে হতে পারে। কিন্তু ঠান্ডা বাতাস পোড়া জিহ্বাকে ঠান্ডা হতে সাহায্য করে চমৎকারভাবে।


৬। মেন্থল

পুদিনার চুইংগাম চিবানোর পর ১ চুমুক পানি পান করলে মুখে ঠান্ডা অনুভূতি হয় এটা আমরা জানি। পুদিনায় মেন্থল থাকে যা স্নায়ুকে শান্ত করে, ঐ স্থানকে অবশ করে এবং প্রদাহ কমায়। এ কারণেই মেন্থল পোড়া জিহ্বার উপর প্রভাব ফেলে। জিহ্বার পোড়া নিরাময়ের জন্য পুদিনার চুইংগাম চিবাতে পারেন অথবা পুদিনার টুথপেস্ট জিহ্বার উপর লাগিয়ে রাখতে পারেন কিছুক্ষণ।