ইসলামে রাসূলের (সা.) মনোনীত তরিকা কয়টি?

ইসলামিক শিক্ষা 20th Jan 17 at 4:52pm 1,816
Googleplus Pint
ইসলামে রাসূলের (সা.) মনোনীত তরিকা কয়টি?

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’।


জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় এনটিভির জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দ‍র্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ।


আপনার জিজ্ঞাসার ১৯২১তম পর্বে ইসলাম ধর্মে রাসূলের (সা.) মনোনীত তরিকা কয়টি, সে সম্পর্কে চট্টগ্রাম থেকে চিঠিতে জানতে চেয়েছেন আক্তারুজ্জামান বায়েজিদ। অনুলিখনে ছিলেন জহুরা সুলতানা।


প্রশ্ন : ইসলাম ধর্মে আমাদের রাসূলের (সা.) মতে তরিকা কয়টি ও কী কী? একজন মুসলমানকে কি শরিয়ত ছাড়াও অন্য তরিকার কাজ—সাধন-ভজন করতে হবে?


উত্তর : ইসলাম ধর্ম যেমন একটি, তেমনি তরিকাও একটি, দ্বীনও একটি, রাসূলও একজন, কিতাবও একটি, নবীও একজন—সবই এক। এখানে দ্বিতীয় কোনো তরিকা নেই, একটাই তরিক, সেটা হচ্ছে মুহাম্মদ (সা.)-এর দেখানো তরিকা, সেটা হচ্ছে সুন্নাতে মুহাম্মাদিন (সা.) বা মুহাম্মদ (সা.)-এর সুন্নাহ।


এর বাইরে কোনো সাধনা নেই, ভজন নেই। এর বাইরে যাঁরা চিন্তা করেছেন, তাঁরা নতুন কিছু তৈরি করেছেন, এটি বিভ্রান্তি, এটি পথভ্রষ্টতা। এ প্রসঙ্গে রাসূল (সা.) বলেছেন, ‘কুল্লু বেদআতিন দলালাহ (প্রত্যেকটি নতুন আবিষ্কৃত বিষয়ই বেদআত আর প্রত্যেকটি বেদআতই বিভ্রান্তি)’

তাই এটি বেদআতের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত। যদি আপনি মনে করেন যে, নতুন কোনো কিছু ইসলামের মধ্যে রয়েছে, এখানে কোনো তরিকা নেই, তরিকা একটাই, যেটা রাসূল (সা.) দেখিয়েছেন।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 36 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)