প্রাকৃতিক উপাদানে চুলের পরিচর্যা

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 23rd Dec 16 at 12:40pm 554
Googleplus Pint
প্রাকৃতিক উপাদানে চুলের পরিচর্যা
শীতকালে শুষ্ক শীতল হাওয়া ও বাতাসে বেড়ে যাওয়া ধুলাবালুর কারণে শরীরের ত্বকের মতো চুলও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ঋতুকালীন সমস্যা ছাড়াও মানসিক চাপ, ওষুধের পাশ্বপ্রতিক্রিয়া সহ বিভিন্ন কারণ তো রয়েছেই চুল ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার নেপথ্যে।

আর তাই প্রাকৃতিক উপাদানের সাহায্যে নিতে পারেন চুলের পরিচর্যায়। নিস্তেজ এবং ক্ষতিগ্রস্ত চুল পুনরুজ্জীবিত করার পাঁচটি ভেষজ চুলের মাস্ক জেনে নিন।

→ মেথি
মেথিতে প্রচুর পরিমানে প্রোটিন আছে যা চুল স্থিতিস্থাপকতা উন্নত করে এবং চুলের ভাঙ্গন রোধ করে। এছাড়াও এতে ভিটামিন সি, লৌহ এবং লিকিথিন আছে যা চুলে পুষ্টি যোগায় ও শক্তিশালী করে।

উপকরণ : দুই টেবিল চামচ মেথি দানা, আধ কাপ টক দই, এক টেবিল চামচ নারকেল তেল।

প্রণালী : এক কাপ পানিতে সারারাত মেথি ভিজিয়ে রাখুন। পরের দিন সকালে মেথি বেটে পেস্ট করে নিন। এতে নারকেল তেল ও টক দই মিশিয়ে এই মাস্কটি মাথার ত্বকে ও চুলে লাগান। তিরিশ মিনিটের মতো রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

→ ওটস
আরো একটি প্রাকৃতিক হেয়ার মাস্ক, যাতে ভিটামিন বি ভরপুর আছে এবং যেটা চুলের আদ্রতা বজায় রেখে চুলকে আরো প্রাণবন্ত করে। আর এর ব্যাকটেরিয়াবিরোধী বৈশিষ্ট্য মাথার ত্বক পরিষ্কার ও চুলকানি প্রশমিত করে।

উপকরণ : আধ কাপ ওটস, দুই টেবিল চামচ নারকেল তেল, আধ কাপ দুধ।

প্রণালী : সব উপাদানগুলোর একটি পেস্ট বানান। মাথার ত্বকে ও চুলে ভালো করে লাগিয়ে নিন। এই উপাদানগুলো কাঁধের দৈর্ঘ্যের চুলের জন্য যথেষ্ট। চুল আরো বড় হলে উপাদানগুলোর পরিমান দ্বিগুণ করুন। মাস্কটি ২০ মিনিটের মতো রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ভালো করে চুল ধুয়ে ফেলুন।

→ অ্যালোভেরা জেল
অতিরিক্ত আদ্রতা চুলকে শুষ্ক করে দেয়। অ্যালোভেরা এমন একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা আদ্রতা বজায় রেখে চুলকে ভেতর থেকে সজীব রাখে।

উপকরণ : অ্যালোভেরা জেল তিন টেবিল চামচ, নারকেল তেল তিন টেবিল চামচ। এই পরিমাণ উপকরণ কাঁধ দৈর্ঘ্যের চুলের জন্য যথেষ্ট। লম্বা চুলের জন্য উপাদানগুলোর পরিমান দ্বিগুণ করুন।

প্রণালী : একটি বাটির মধ্যে সব উপাদান ঢেলে ভালো করে মেশান। আপনার চুল ও মাথার ত্বকে লাগিয়ে নিন। দ্রুত মাথার ত্বকে প্রবেশ করার জন্য মাথায় একটি গরম তোয়ালে জড়িয়ে নিতে পারেন। তিরিশ মিনিটের মতো রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ভালো করে চুল ধুয়ে ফেলুন।

→ শিকাকাই গুঁড়া
শিকাকাই এর ছত্রাক বিরুদ্ধ বৈশিষ্ট মাথার ত্বক পরিষ্কার রাখে, খুশকি দূর করে, ত্বকের ছিদ্র পরিষ্কার রাখে এবং গভীর থেকে চুলের পুষ্টি যোগায়।

উপকরণ : শিকাকাই গুঁড়া এক টেবিল চামচ, নারকেল তেল এক কাপ।

প্রণালী : একটি বোতলের মধ্যে নারকেল তেল ঢেলে শিকাকাই গুঁড়া মেশান। ভালো করে ঝাঁকিয়ে দুই সপ্তাহের জন্য রেখে দিন। দুই সপ্তাহের পর এটি ব্যবহারযোগ্য হবে।

→ ডিম
চুলের প্রায় আশি শতাংশ কেরাটিন নামক প্রোটিন দিয়ে তৈরি যা চুলের স্থিতিস্থাপকতা, শক্তি এবং বুনোট নির্ধারণ করে। এই জন্য প্রোটিনে ভরপুর ডিম একটি চমৎকার উপাদান ঘরোয়া মাস্ক তৈরিতে।

উপকরণ : একটি ডিমের সাদা অংশ, এক টেবিল চামচ নারকেল তেল, মধু এক চা-চামচ।

প্রণালী : কুসুম থেকে ডিমের সাদা অংশ আলাদা করে নিন। মধু ও নারকেল তেল মিশিয়ে ভালো করে ফেটিয়ে নিন। ভেজা চুলে খুব ভালো করে লাগিয়ে নিন। আঙুলের ডগা দিয়ে পাঁচ মিনিট ধরে মালিশ করুন এবং তারপর একটি গরম তোয়ালে মাথায় জড়িয়ে নিন। বিশ মিনিট রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।
Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 17 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)