এক প্যাকে নিমিষেই ত্বকের বলিরেখা দূর

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস December 12, 2016 601
এক প্যাকে নিমিষেই ত্বকের বলিরেখা দূর

কালো দাগ, বলিরেখা, মলিনতা কিংবা ব্রণ- সব সমস্যার সমাধান করবে মাত্র একটি প্যাক। সেই সঙ্গে ত্বক করবে ফর্সা ও মসৃণ। তবে এ ক্ষেত্রে চারটি প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে প্যাকটি তৈরি করতে হবে। আমন্ড বাদাম, মধু, দুধ ও হলুদের গুঁড়ো। আমন্ড বাদামে ভিটামিন-ই রয়েছে, যা ত্বকের কালচে দাগ দূর করে।


মধুতে অ্যামিনো এসিড, অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস ও ভিটামিন সি রয়েছে, যা ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে এবং বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে। আর দুধে রয়েছে প্রোটিন ও ল্যাকটিক এসিড, যা ত্বক নরম ও মসৃণ করে। অন্যদিকে হলুদের গুঁড়োতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান রয়েছে, যা ব্রণ দূর করতে খুবই উপকারী।


এই চারটি উপাদান দিয়ে কীভাবে প্যাক তৈরি করবেন ও ব্যবহার করবেন সে সম্বন্ধে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বোল্ডস্কাই ওয়েবসাইটের জীবনধারা বিভাগে। একনজরে চোখ বুলিয়ে নিন।


প্রথম ধাপ

পাঁচ-সাতটি আমন্ড বাদাম আধা কাপ পানির মধ্যে সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে বাদামগুলো ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। বেশি ঘন হয়ে গেলে এর সঙ্গে সামান্য দুধ মিশিয়ে নিন।


দ্বিতীয় ধাপ

এর মধ্যে এক চা চামচ মধু কাটা চামচ দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। মধু আপনার ত্বকের শুষ্কতা দূর করবে এবং আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করবে।


তৃতীয় ধাপ

এই প্যাকের মধ্যে সামান্য হলুদের গুঁড়ো ও দুধ মিশিয়ে নরম প্যাক তৈরি করুন। খেয়াল রাখবেন, প্যাকটি যেন বেশি ঘন না হয় আবার বেশি পাতলা না হয়।


চতুর্থ ধাপ

মাইল্ড ফেসওয়াশ অথবা ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে ধুয়ে নিন, যাতে কোনো রকমের ময়লা ও মেকআপ না থাকে। মুখ না মুছে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন, যাতে ত্বক নরম হয়।


পঞ্চম ধাপ

এবার আঙুল বা ব্রাশ দিয়ে পুরো মুখে এই প্যাক লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ভিজিয়ে দুই থেকে পাঁচ মিনিট হালকাভাবে ম্যাসাজ করুন।


ষষ্ঠ ধাপ

এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। পাঁচ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন, যাতে লোমকূপের মুখগুলো বন্ধ হয়ে যায়।


সপ্তম ধাপ

ত্বক অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার দিয়ে ম্যাসাজ করে নিন। ভালো ফল পেতে সপ্তাহে অন্তত একদিন এই প্যাক ব্যবহার করুন।