ভারতে ৫০০ ও ১০০০ রুপি নিষিদ্ধ, কারণ কী?

মজার সবকিছু 20th Nov 16 at 1:23pm 984
Googleplus Pint
ভারতে ৫০০ ও ১০০০ রুপি নিষিদ্ধ, কারণ কী?
সম্প্রতি ভারতে ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বলা হচ্ছে, অপ্রদর্শিত অর্থের একটা গতি করতেই এই পদক্ষেপ। কিন্তু হাস্যরস টিমের মনে হচ্ছে অন্য কিছু। চলুন, দেখে আসি কী সেটা।

১. ভারতে বাসে আজকাল লেখা থাকে ৫০০ ও ১০০০ রুপির ভাংতি নাই। যদি ৫০০ ও ১০০০ রুপির ভাংতি না থাকে, তাহলে ৫০০ কিংবা ১০০০ রুপি নোটের কী দরকার? বাস ড্রাইভারদের দুঃখে সরকার ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট নিষিদ্ধ করতে পারে।

২. ভারতে আজকাল মা-বাবার কাছে ৫০০ কিংবা ১০০০ রুপির ভাংতি তেমন একটা থাকে না। সে জন্য সন্তান ১০০ রুপি তাঁদের কাছে চাইলে তখন বাধ্য হয়ে তাঁদের ৫০০ বা ১০০০ রুপি দিতে হয়। কিন্তু আফসোসের বিষয়, সন্তান অবশিষ্ট রুপি ফেরত দেয় না। যার ফলে অভিমানী মা-বাবাদের মন রক্ষা, আইমিন ভোট পাওয়ার জন্য সরকার ৫০০ ও ১০০০ রুপি নোট নিষিদ্ধ করেছে।

৩. ৫০০ ও ১০০০ রুপি নোট আকারে অনেক বড়। সে জন্য অনেক সময় সেটা মানিব্যাগে রাখা সম্ভব হয় না। তাই জনগণকে ৫০০ ও ১০০০ রুপি নোট নিয়ে যাতে করে মানিব্যাগ বিড়ম্বনায় পড়তে না হয়, সে জন্য সরকার ৫০০ ও ১০০০ রুপি নোট নিষিদ্ধ করতে পারে।

৪. ভারতে এখন ৫০০ ও ১০০০ রুপি নোট নিষিদ্ধ। যার ফলে সারা পৃথিবীর মিডিয়ায় শুরু হইছে ভারত নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা। বলা যায়, ফ্রি ফ্রি প্রচার হয়ে যাচ্ছে ভারতের। তো, সেই দৃষ্টিকোণ থেকে শুধু বিশ্ব মিডিয়ায় ফ্রি প্রচারের জন্য ৫০০ ও ১০০০ রুপি নোট সরকার নিষিদ্ধ করেছে।

৫. কথায় আছে, টাকা আকাশে ওড়ে। ৫০০ ও ১০০০ রুপি নিষিদ্ধের পর এখন ভারতে ওই দুই রুপির নোট সত্যি সত্যি আকাশে উড়ছে। মানে নদী-নালা-খালে-বিলে বান্ডিল বান্ডিল ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট পাওয়া যাচ্ছে।

সূত্রঃ এনটিভি অনলাইন
Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 26 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)