বদরুলের বোকামি

ডাক্তার ও রোগী June 21, 2016 1,998
বদরুলের বোকামি

বদরুল খবর পেল, এলাকায় এক ডাক্তার এসেছেন, যিনি সব রোগ ভালো করতে পারেন। সে বন্ধুদের সঙ্গে বাজি ধরল, এই ডাক্তারকে সে অনায়াসে ঠকিয়ে আসতে পারবে। যে কথা সেই কাজ। সে ডাক্তারের কাছে গিয়ে বলল, ‘স্যার আমার সিরিয়াস প্রবলেম। কোনো খাবারেই স্বাদ পাই না। টক-ঝাল-মিষ্টি কোনো স্বাদই না।’


ডাক্তার ভ্রু কুঁচকে বললেন, ‘গুরুতর সমস্যা।’ তারপর সহকারীর দিকে ফিরে হাঁক দিলেন, ‘এই, ৪৩ নম্বর ওষুধটা দাও তো।’ সহকারী ৪৩ নম্বর ওষুধটা এনে দিতেই ডাক্তার সাহেব বদরুলকে সেটা খেতে দিলেন।


বদরুল সেটা খেয়েই থুথু ফেলতে ফেলতে বলল, ‘ছি ছি, এটা কী দিলেন! এটা তো গোবর।’ ডাক্তার মুচকি হেসে বললেন, ‘তার মানে ওষুধ কাজ করছে। আপনি গোবরের স্বাদ বুঝতে পারছেন।’


ডাক্তারের কাছে ধরা খেয়ে বদরুল মনঃক্ষুণ্ন হয়ে চলে গেল। ডাক্তারকে শায়েস্তা করার জন্য কয়েক দিন পর আবার এলো সে। বলল, ‘ডাক্তার সাহেব, আমার তো মহা সমস্যা। কোনো কিছুই মনে থাকছে না। এই মুহূর্তে যা করছি পরের মুহূর্তেই ভুলে যাচ্ছি। কী করা?’


ডাক্তার বললেন, ‘এটাও কোনো সমস্যা না।’ তারপর সহকারীর উদ্দেশে হাঁক ছাড়লেন, ‘এই, ৪৩ নম্বর ওষুধটা দাও তো!’


এটা শুনেই বদরুল লাফিয়ে উঠল, ‘আরে, ৪৩ নম্বর ওষুধ মানে তো গোবর।’


ডাক্তার হেসে বললেন, ‘এই তো কাজ হয়েছে, স্মৃতি ফিরে এসেছে।’